শনিবার, ১৩ এপ্রিল ২০২৪, ১২:২৩ পূর্বাহ্ন
সংবাদ শিরোনাম :
দেশবাসীকে বাংলা নববর্ষের শুভেচ্ছা প্রধানমন্ত্রীর চৈত্র সংক্রান্তি শনিবার আওয়ামী লীগ পুলিশ লীগে পরিণত: মির্জা ফখরুল `বিএনপি ককটেল পার্টি করেনি, ইফতার পার্টি করেছে’ ইরান-ইসরায়েলকে সংযত থাকার আহ্বান রাশিয়াসহ পরাশক্তিগুলোর যুদ্ধের জন্য প্রস্তুত হওয়ার বার্তা কিমের দুই ম্যাচ নিষিদ্ধ রোনালদো ৪ জেলায় সড়ক দুর্ঘটনায় ১০ জনের মৃত্যু ভারতীয় পণ্য বর্জন, বিএনপির রাজনৈতিক কর্মসূচী নয়: খসরু সর্বোচ্চ গোলদাতার লড়াইয়ে চলছে টান টান উত্তেজনা আটলান্টার কাছে বড় ব্যবধানে হারলো লিভারপুল রেকর্ড ১৭টি `ডাক` ইনিংস ম্যাক্সওয়েলের বৈদেশিক মুদ্রার রিজার্ভ বেড়ে ২০ বিলিয়ন ডলারের উপরে পার্বত্য চট্টগ্রামে বৈসাবী উৎসব শুরু কমেনি মুরগির দাম, বেড়েছে সবজির

অভিযান-১০ লঞ্চে অগ্নিকাণ্ডে গ্রেপ্তার তিন মালিককে নৌ-আদালতের মামলাতেও গ্রেপ্তার

রিপোর্টারের নাম :
আপডেট : জানুয়ারি ৪, ২০২২

বৃত্তান্ত প্রতিবেদক: ঝালকাঠির সুগন্ধা নদীতে এমভি অভিযান-১০ লঞ্চে অগ্নিকাণ্ডের ঘটনায় ৫৪ ধারায় গ্রেপ্তার তিন মালিককে নৌ আদালতের মামলায় গ্রেপ্তার দেখানো হয়েছে। কারাগারে থাকা মালিক হামজালাল শেখ, শামীম আহাম্মেদ ও রাসেল আহাম্মেদকে ১৯ জানুয়ারি নৌ আদালতে হাজির করার আদেশ দেওয়া হয়েছে।

গত ২৩ ডিসেম্বর মধ্যরাতে ঢাকা থেকে বরগুনা যাওয়ার পথে এমভি অভিযান ১০ লঞ্চে অগ্নিকাণ্ডে এ পর্যন্ত ৪৭ জনের মরদেহ উদ্ধার করা হয়েছে। দগ্ধ অনেকে এখনো ঢাকা ও বরিশালের বিভিন্ন হাসপাতালে চিকিৎসাধীন।

মঙ্গলবার ৫৪ ধারায় গ্রেপ্তার হয়ে কারাগারে থাকা মালিকদের গ্রেপ্তার (শ্যোন অ্যারেস্ট) দেখিয়ে আদালতে হাজির করার আবেদন করেন নৌপরিবহন অধিদপ্তরের প্রসিকিউটিং অফিসার বেল্লাল হোসাইন।

নৌ আদালতের বিচারক জয়নাব বেগম আসামিদের গ্রেপ্তার দেখিয়ে ১৯ জানুয়ারি আদালতে হাজির করতে ঢাকা কেন্দ্রীয় কারাগার কর্তৃপক্ষের প্রতি আদেশ জারি করেন।

ওই দিন কারাগারে থাকা মামলার আসামি চার মাস্টার-ড্রাইভারকেও আদালতে হাজির করার কথা রয়েছে। পৃথক তারিখে আত্মসমর্পণের পর তাঁদের জামিনের আবেদন নামঞ্জুর করে কারাগারে পাঠিয়েছিলেন নৌ আদালতের বিচারক।

আট আসামির মধ্যে লঞ্চটির একজন মালিক প্রাপ্তবয়স্ক নয় বলে আদালত সূত্র জানিয়েছেন।

র‌্যাব এর আগে লঞ্চটির মালিক হামজালাল শেখকে ঢাকার কেরানীগঞ্জ থেকে গ্রেপ্তার করে। বাকি দুই মালিক শামীম আহাম্মেদ ও রাসেল আহাম্মেদকে রাজধানীর সূত্রাপুর থেকে গ্রেপ্তার করে ঢাকা মেট্রোপলিটন পুলিশের গোয়েন্দা বিভাগ। তখন তাঁদের নৌ আদালতের মামলার পরিবর্তে ৫৪ ধারায় গ্রেপ্তার দেখিয়ে কারাগারে পাঠানো হয়েছিল।


এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ