মঙ্গলবার, ০৬ ডিসেম্বর ২০২২, ০৪:১৫ অপরাহ্ন
সংবাদ শিরোনাম :
দেশের সব জায়গায় কাল থেকে সতর্ক পাহারায় থাকবে আ. লীগ: সেতুমন্ত্রী রাজধানীর নতুন যে জায়গায় সমাবেশের অনুমতি চেয়েছে বিএনপি হলো না ছাত্রলীগের নতুন কমিটি ভোট চুরি করলে জনগণ ছেড়ে দেয় না : প্রধানমন্ত্রী রাস্তায় পেতে রাখা বোমার বিস্ফোরণে ৭ জন নিহত বিধ্বস্ত পাওয়ার গ্রিড পুনরুদ্ধারের চেষ্টা চালাচ্ছে ইউক্রেন পঞ্চগড়ে দেশের সর্বনিম্ন তাপমাত্রার রেকর্ড ছাত্রলীগের সম্মেলন উদ্বোধন করলেন প্রধানমন্ত্রী জরুরি ভিত্তিতে কর্মী নেবে রাশিয়া, লাগবে না ভাড়া বাংলাদেশ বিনিয়োগের সবচেয়ে আকর্ষণীয় জায়গা- প্রধানমন্ত্রী নতুন বছরের ‘শুরুতেই’ দ্বিতীয় মেয়াদের বিষয়ে সিদ্ধান্ত নেবেন বাইডেন গাইবান্ধা-৫ আসনের উপনির্বাচন ৪ জানুয়ারি ব্রাজিলের জয় নিয়ে যা বললেন বুবলী অসুস্থ পেলেকে জয় উৎসর্গ করলেন নেইমাররা ফেরি চলাচল ব্যাহত দৌলতদিয়া-পাটুরিয়া নৌপথে

আগাম পাহাড়ি ঢলে হাওরের বিস্তীর্ণ এলাকার বোরো ক্ষতিগ্রস্ত

রিপোর্টারের নাম :
আপডেট : এপ্রিল ৩, ২০২২

বৃত্তান্ত প্রতিবেদক: উজান থেকে নেমে আসা পাহাড়ি ঢলে কিশোরগঞ্জের হাওরে তলিয়ে গেছে বিস্তীর্ণ এলাকার বোরো ধান। ফসলরক্ষা বাঁধ রক্ষায় প্রাণপণ চেষ্টা চালাচ্ছেন স্থানীয়রা। জেলার ইটনায় চর এলাকায় পানির নিচ থেকে কাঁচা-পাকা ধান কাটার চেষ্টা করছেন কৃষকরা।

চোখের সামনে পানিতে তলিয়ে যাচ্ছে জমির কাঁচাপাকা ধান। ধান পাকার আগ মুহূর্তে কষ্টের ফসল পানিতে তলিয়ে যাওয়ায় আর্তনাদ করছেন কৃষকরা। চেয়ে দেখা ছাড়া আর কিছুই করার নেই কৃষকদের। কিশোরগঞ্জের হাওরাঞ্চলের ইটনায় মাঠে মাঠে এখন ফসলহারা কৃষকদের আর্তনাদ। অনেকেই বাধ্য হয়ে কেটে ফেলছেন কাঁচাপাকা ধান।

ভারতের আসামের চেরাপুঞ্জিতে অতিরিক্ত বৃষ্টি হয়েছে। নদীর পানি বেড়ে যাওয়ায় সুনামগঞ্জ হয়ে প্রবল বেগে পানি ঢুকছে কিশোরগঞ্জের ইটনা হাওরে। শনিবার বিকেল নাগাদ ইটনার ধনু নদীর পানি বেড়ে ঢুকে পড়ে চরাঞ্চলের নিচু জমিতে।

ইটনা সদরের চরপাড়া গ্রামের মইধর আলী জিওলের হাওর সাব মার্সিবল সড়কে বসে দেখছিলেন ক্ষেতের ধান ডুবে যাওয়া। আর মাত্র ১৫ দিন পরই জমির ধান কাটা শুরু হতো। জমির ধান ডুবে যাওয়ায় তার চোখে-মুখে শুধুই বিষাদের ছায়া।

ইটনা উপজেলার জিওলের হাওরসহ বিভিন্ন এলাকা ঘুরে দেখা গেছে, প্রবল বেগে নদীর পানি বৃদ্ধির সঙ্গে সঙ্গে ডুবছে নতুন নতুন জমি। জিওলের বাঁধসহ বেশকিছু বাঁধে ফাটল দেখা দিয়েছে। স্থানীয়রা বাঁশ, মাটি ও চাটাই দিয়ে বাঁধ রক্ষার চেষ্টা করছেন।

কৃষকদের অভিযোগ পানি উন্নয়ন বোর্ড ফসল রক্ষাবাঁধগুলো সময় মতো মেরামত না করায় এগুলো ভেঙে পড়ার উপক্রম হয়েছে। এগুলো দ্রুত সংস্কার না করা হলে বিভিন্ন হাওর দ্রুত ডুবে যাবে।

ইটনা সদর ইউপি চেয়ারম্যান শফিকুল ইসলাম সোহাগ জানান, হঠাৎ করে উজানের পানি চাপ দেওয়ায় জিওলের বাঁধ ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে। গ্রামবাসীকে নিয়ে বাঁধটি মেরামত করা হচ্ছে।

পানি উন্নয়ন বোর্ড সময়মতো ফসলরক্ষা বাঁধ মেরামত করতে না পারায় সহজেই জমিতে পানি চলে যাচ্ছে বলে অভিযোগ কৃষকদের।

কিশোরগঞ্জ পানি উন্নয়ন বোর্ডের নির্বাহী প্রকৌশলী মতিউর রহমান জানান, হাওরের ৭৩টি ফসলরক্ষা বাঁধ সংস্কার করা হয়েছে। তবে জমি অধিগ্রহণ শেষ না হওয়ায় প্রায় ৬০ কিলোমিটার দীর্ঘ ১২টি বড় ফসলরক্ষা বাঁধ প্রকল্প এখনও শেষ হয়নি।

এদিকে রোববার দুপুরে কিশোরগঞ্জ জেলা কৃষি সম্প্রসারণ অধিদপ্তরের সহকারী উপপরিচালক সাইফুল হাসান আলামিনের নেতৃত্বে কৃষি বিভাগের চার সদস্যের একটি দল জিওলের হাওরে ক্ষতিগ্রস্ত এলাকা পরিদর্শন করেছেন।

তিনি জানান, এ পর্যন্ত কী পরিমাণ জমি পানিতে ডুবে গেছে তা নিরুপণের কাজ চলছে। তবে এ হাওরে প্রাথমিকভাবে ২০০ একর জমিতে পানি উঠেছে বলে জানান তিনি।

ইটনাসহ কিশোরগঞ্জের তিনটি হাওর উপজেলায় এবার ১.০৪ লাখ মেট্রিক টন বোরো ধান আবাদের লক্ষ্যমাত্রা রয়েছে।


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ