বৃহস্পতিবার, ০৮ ডিসেম্বর ২০২২, ১২:২৮ অপরাহ্ন
সংবাদ শিরোনাম :
পেরুর নতুন প্রেসিডেন্ট দিনা বলুআর্তে বিশ্বে করোনায় ২৪ ঘণ্টায় ১১৭৪ জনের মৃত্যু মস্কো আগ বাড়িয়ে পরমাণু অস্ত্র ব্যবহার করবে না : পুতিন আফগানিস্তানে প্রকাশ্যে ‘জঘণ্য’ মৃত্যুদন্ড কার্যকরের নিন্দা যুক্তরাষ্ট্রের ক্ষমতাচ্যুত হওয়ার পরই পেরুর প্রেসিডেন্ট আটক মেসিকে নিয়ে এবার মুখ খুললেন ডাচ কোচ ফন হাল ম্যানইউর ১১ ফুটবলার খেলছেন বিশ্বকাপের কোয়ার্টার ফাইনালে ইনজুরির গুঞ্জন উড়িয়ে যা বললেন ডি পল পিতৃ-মাতৃভূমির টানে অন্যদেশে যাননি হাকিমি-জিয়েশরা বিশ্বকাপ ভেন্যু ৯৭৪ অনুদান চায় বাংলাদেশ চঞ্চলের ‘কারাগার’ নিয়ে তৈরি হয়েছে নতুন রহস্য! (ভিডিও) সাগরে ঘূর্ণিঝড় ‘মানদৌস’, বন্দরে বাড়লো হুঁশিয়ারি সংকেত শান্তিপূর্ণ সমাবেশ করতে দেয়ার জন্য বাংলাদেশের প্রতি জাতিসংঘের আহ্বান বিশ্ববাজারে স্বর্ণ ক্রয়ের নতুন রেকর্ড Putin warns of ‘lengthy’ Ukraine conflict, rising nuclear tensions

ইউক্রেন যুদ্ধে আমাদের ১৩৫১ সেনা প্রাণ দিয়েছেন : রাশিয়া

রিপোর্টারের নাম :
আপডেট : মার্চ ২৬, ২০২২
ইউক্রেন যুদ্ধে আমাদের ১৩৫১ সেনা প্রাণ দিয়েছেন : রাশিয়া

ইউক্রেন অভিযানে সেনা হতাহতের সবশেষ তথ্য জানাল রাশিয়া। দেশটির কর্মকর্তারা বলছেন, ইউক্রেন অভিযানে এখন পর্যন্ত রাশিয়ার ১ হাজার ৩৫১ সেনা নিহত হয়েছেন। আহত হয়েছে ৩ হাজার ৮২৫ জন। হামলার ৩০তম দিন শুক্রবার (২৫ মার্চ) দ্বিতীয়বারের মতো এ হতাহতের তথ্য জানাল রুশ প্রতিরক্ষা মন্ত্রণালয়।

রুশ বার্তা সংস্থা রিয়া নভোস্তি এক প্রতিবেদনে এ তথ্য নিশ্চিত করেছে। যদিও ইউক্রেনের দাবি, প্রতিরোধ যুদ্ধে হাজার হাজার রুশ সেনা নিহত হয়েছে। বৃহস্পতিবার (২৪ মার্চ) ইউক্রেনের প্রতিরক্ষা কর্মকর্তারা জানান, যুদ্ধে অন্তত ১৫ হাজার ৬০০ সেনা হারিয়েছে রাশিয়া।

এক ফেসবুক পোস্টে ইউক্রেনের জেনারেল স্টাফ জানায়, হাজার হাজার সেনার পাশাপাশি যুদ্ধে রাশিয়ার ৫৩০টি ট্যাঙ্ক, এক হাজার ৫৯৭টি সাঁজোয়া যান, ১০৮টি প্লেন, ১২৪টি হেলিকপ্টার এবং ৫০টি ড্রোন ধ্বংস হয়েছে।

রুশ সেনা হতাহতের প্রায় একই তথ্য দিয়েছে পশ্চিমা সামরিক জোট ন্যাটো। জোটের নেতারা বলেছেন, ইউক্রেনে এখন পর্যন্ত ১ হাজার ৮০০ সেনা নিহত হয়েছে। তবে বিশ্বের মূলধারার গণমাধ্যমগুলো বলছে, ইউক্রেন ও ন্যাটোর এই দাবির সত্যতা যাচাই করা যায়নি।

প্রসঙ্গত, গত ২৪ ফেব্রুয়ারি ইউক্রেনে সামরিক অভিযানের ঘোষণা দেন রুশ প্রেসিডেন্ট ভ্লাদিমির পুতিন। সেই থেকে পূর্ব ইউরোপের দেশটিতে রুশ বাহিনীর অব্যাহত রয়েছে।

মস্কো বলছে, ইউক্রেনকে ‘অসামরিকায়ন’ ও ‘নাৎসিমুক্তকরণ’ এবং দোনেস্ক ও লুহানস্কের রুশ ভাষাভাষী বাসিন্দাদের রক্ষা করার জন্যই এমন সামরিক পদক্ষেপ। তবে ইউক্রেনের পক্ষ থেকে বলা হচ্ছে, সম্পূর্ণ বিনা উসকানিতে রাশিয়া হামলা চালিয়েছে।


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ