সোমবার, ২৪ জুন ২০২৪, ০৩:৪৯ পূর্বাহ্ন
সংবাদ শিরোনাম :
‘ষড়যন্ত্র মোকাবেলা করেই দেশ এগিয়ে নিচ্ছি’ রাষ্ট্রপতির সঙ্গে নবনিযুক্ত সেনাপ্রধানের সাক্ষাৎ র‍্যাঙ্ক ব্যাজ পরানো হয়েছে নবনিযুক্ত সেনাপ্রধানকে পুলিশ অ্যাসোসিয়েশনের বিবৃতি দুর্নীতি উৎসাহিত করবে: ডিআরইউ মতিউর রহমানের বিরুদ্ধে দুদকের অনুসন্ধান শুরু খালেদা জিয়ার শারীরিক অবস্থার খোঁজ নিতে এভার কেয়ারে রিজভী তিস্তা নদী বা যৌথ নদী ব্যবস্থাপনা নিয়ে আলোচনা হয়েছে: পররাষ্ট্রমন্ত্রী সেনাপ্রধান হিসেবে দায়িত্ব গ্রহণ করলেন ওয়াকার-উজ-জামান বেনজীর ও তার স্ত্রী-সন্তানের ১০ বিও হিসাব অবরুদ্ধ জীবন-মৃত্যুর সন্ধিক্ষণে খালেদা জিয়া: মির্জা ফখরুল দোশের ১৪ জেলায় নতুন পুলিশ সুপার নিয়োগ সময় নিয়েও দুদকে হাজির হলেন না বেনজীর এনবিআর থেকে সরিয়ে দেওয়া হলো ছাগলকাণ্ডের মতিউরকে খালেদা জিয়ার হৃদযন্ত্রে পেস মেকার বসানোর কাজ চলছে: আইনমন্ত্রী নেতানিয়াহুর পদত্যাগের দাবিতে তেল আবিবে বিক্ষোভ

কুরআন তিলাওয়াতের পর শুরু মন্দিরের ধর্মীয় উৎসব

রিপোর্টারের নাম :
আপডেট : এপ্রিল ১৬, ২০২২
কুরআন তিলাওয়াতের পর শুরু মন্দিরের ধর্মীয় উৎসব

ভারতের কর্ণাটকে গত কয়েক মাস ধরে বিভাজনের সুর বইছে। কিন্তু তার মধ্যেও সম্প্রীতির নজির রয়েছে। তবে সম্প্রীতির তেমনই এক নজির সামনে এলো। সেখানকার চেন্নাকেশব মন্দিরে কুরআন তিলাওয়াতের পর শুরু হয় রথোৎসব। যদিও কিছু হিন্দু গ্রুপ রথোৎসব শুরুর আগে আপত্তি জানিয়েছিল। তবে তো ধোপে টেকেনি। দীর্ঘদিন ধরেই এই মন্দিরের রথোৎসবের আগে কুরআন তিলাওয়াত করা হয়। খবর হিন্দুস্তান টাইমসের।

দ্বাদশ শতাব্দীর হয়সালা রাজা বিষ্ণুবর্ধন এই মন্দির নির্মাণ করে। ১১১৬ সালে চোলাস বিরুদ্ধে জয় লাভের পর এই মন্দির তৈরি করেন তিনি। এই জয়কে তিনি ‘বিজয়া নারায়ণা’ বলে অভিহিত করেছিলেন। প্রতিবছর ভারত ও ভারতের বাইরে থেকে বহু পর্যটক এবং ভক্ত এই মন্দিরে আসেন।

করোনাভাইরাস মহামারির কারণে গত দুই বছর ধরে এই উৎসব অনুষ্ঠিত হতে পারেনি। তবে বুধবার যখন এই উৎসব শুরু হয় তার আগে যথারীতি কুরআন তিলাওয়াত করা হয়। কুরআন তিলাওয়াত করেন কাজি সৈয়দ সাজিদ পাশা। আন্তঃধর্মীয় সর্ম্পক, হিজাব, হালাল এবং আজান নিয়ে বিতর্কের মাঝেই কর্ণাটকে সম্প্রীতির এমন নির্দশন দেখা গেল।

রাজ্যের একজন সাবেক মন্ত্রী এইচডি রেভান্না বলেছেন, তারা ঐতিহ্য অনুসরণ করে আসছে এবং তা অনুসরণ করা উচিত। আমি প্রার্থনা করি রাজ্য ও দেশের সব হিন্দু, মুসলমান, খ্রিস্টান তাদের ঐক্য রক্ষা করুক। আমাদের এই ঐতিহ্যের ব্যত্যয় ঘটতে দেয়া উচিত নয়।

বিগত নির্বাচনে ভারতীয় জনতা পার্টি (বিজেপি) রাজ্যে ক্ষমতায় আসার পর থেকেই সেখানে মুসলিম বিদ্বেষ বৃদ্ধি পেয়েছে। বেড়েছে এ সংক্রান্ত প্রচারও। কিন্তু রাজ্যের ক্ষমতাসীন দল বিজেপি চোখ বন্ধ করে রেখেছে।


এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ