রবিবার, ২১ এপ্রিল ২০২৪, ১১:৫২ অপরাহ্ন
সংবাদ শিরোনাম :
ঈদের পর রেমিট্যান্সে ফিরে এসেছে গতি সার্বভৌমত্ব রক্ষায় বাংলাদেশ সর্বদা প্রস্তুত: প্রধানমন্ত্রী দুর্দান্ত মেসিতে জয় পেল মায়ামি দুঃসংবাদ পেল ধোনি-মুস্তাফিজদের চেন্নাই বিএনপির নেতিবাচক কর্মকাণ্ডে জনগণের আগ্রহ নেই : ওবায়দুল কাদের বিএনপিনেতা হাবিবুর রহমান হাবিব জামিনে মুক্ত গরমে হাসপাতালগুলোকে যে নির্দেশ দিলেন স্বাস্থ্যমন্ত্রী বোরো মৌসুমে ধান-চাল সংগ্রহের মূল্য নির্ধারণ মিয়ানমার নৌবাহিনীর গুলিতে বাংলাদেশি ২ জেলে গুলিবিদ্ধ ‘কাতার আমিরের সফরে ছয়টি চুক্তি ও পাঁচটি সমঝোতা স্মারক সই হবে’ পেনশন স্কিম, প্রত্যাশার চেয়েও গ্রাহক কম ইসরায়েলে নেতানিয়াহু সরকারের বিরুদ্ধে হাজারো মানুষের বিক্ষোভ ইসরায়েল–ইউক্রেনকে সহায়তায় যুক্তরাষ্ট্রের পার্লামেন্টে বিল পাস ইসরায়েলি সেনাদের ওপর মার্কিন নিষেধাজ্ঞার পরিকল্পনা পশ্চিম তীরে ইসরায়েলি হামলা, ১৪ ফিলিস্তিনি নিহত

খেলতে চাইলে ক্ষমতা ছেড়ে রাস্তায় আসুন: মির্জা ফখরুল

রিপোর্টারের নাম :
আপডেট : আগস্ট ৪, ২০২৩
খেলতে চাইলে ক্ষমতা ছেড়ে রাস্তায় আসুন: মির্জা ফখরুল

নিজস্ব প্রতিবেদক: বিএনপি মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর বলেছেন, মিথ্যা মামলা দিয়ে কারাগারে পাঠানোর মাধ্যমে হয়রানি করে বিএনপিকে থামানো যাবে না। ক্ষমতাসীনদের উদ্দেশ্য করে তিনি বলেন, খেলতে চাইলে ক্ষমতা ছেড়ে রাস্তায় আসুন। শুক্রবার (৪ আগস্ট) নয়া পল্টনে বিএনপি আয়োজিত প্রতিবাদ সমাবেশে তিনি এসব কথা বলেন।

দুর্নীতি দমন কমিশনের (দুদক) দায়ের করা মামলায় বিএনপির ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান তারেক রহমানকে ৯ বছরের কারাদণ্ড এবং তার স্ত্রী জুবাইদা রহমানকে ৩ বছরের কারাদণ্ড দেয়ায় প্রতিবাদ সমাবেশের আয়োজন করে দলটি। ঢাকা ছাড়াও সারাদেশে জেলা ও মহানগরে প্রতিবাদ সমাবেশের আয়োজন করা হয়।

বিএনপি মহাসচিব বলেন, বিএনপির ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান তারেক রহমান একজন জনপ্রিয় নেতা। যার নেতৃত্বে দেশের গণতান্ত্রিক আন্দোলন যৌক্তিক পর্যায়ে এগিয়ে যাচ্ছে। ঠিক সেসময় এ ফ্যাসিস্ট সরকার তার বিরুদ্ধে একটি ফরমায়েসি রায় দিয়েছে। শুধু তারেক রহমান নয়, তার স্ত্রী জুবাইদা রহমানের বিরুদ্ধেও রায় দিয়েছে।

মির্জা ফখরুল বলেন, বর্তমান তত্ত্বাবধায়ক সরকার সংকট এটা শুধু বিএনপির একার নয়, পুরো জাতির সংকট। বিচারপতি তোমার বিচার করবে যারা, আজ জেগেছে এই জনতা। কারাগারে পাঠিয়ে মিথ্যা মামলা দিয়ে হয়রানি করে আমাদের থামাতে পারবেন না।

মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র ও ভারত কী বলল সেটি ভাবার আমাদের কোনো দরকার নেই উল্লেখ করে মির্জা ফখরুল বলেন, আমাদের দরকার এদেশের মানুষ। এদেশের মানুষ সরকারকে বার্তা দিয়েছে যে, তাড়াতাড়ি বিদায় হও। আর সময় নেই। এরা দেশটাকে কোথায় নিয়ে গেছে? এদেরকে চলে যেতেই হবে।

ঢাকা মহানগর উত্তর বিএনপির আহ্বায়ক আমানউল্লাহ আমান সমাবেশে সভাপতিত্ব করেন। এসময় আরও বক্তব্য রাখেন দলের স্থায়ী কমিটির সদস্য মির্জা আব্বাস, গয়েশ্বর চন্দ্র রায় ও আমীর খসরু মাহমুদ চৌধুরীসহ দলের সিনিয়র নেতারা।


এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ