শনিবার, ১৩ জুলাই ২০২৪, ০৮:০৯ অপরাহ্ন
সংবাদ শিরোনাম :
কোটাবিরোধীদের আন্দোলন থামানো উচিত : স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী ‘কোটাবিরোধীদের অনেক বক্তব্য সংবিধানের মূলনীতির বিরোধী’ দেশে এখন দুর্নীতি ফাঁসের মৌসুম চলছে : রিজভী কোটা সংস্কার আন্দোলন অন্যদিকে ধাবিত করার চেষ্টা চলছে : ডিবিপ্রধান কোটাবিরোধীদের ভাঙচুর-হামলার জেরে পুলিশের মামলা দায়ের ‘ব্যাংকিং খাত এখন দুরবস্থার মধ্যে রয়েছে’ ডিসেম্বরেও উৎপাদনে যাচ্ছে না পারমাণবিক বিদ্যুৎকেন্দ্র বৃষ্টিতে তলিয়ে গেছে দিল্লি, মুম্বাইসহ বেশ কিছু রাজ্য গাজার মানবিক অঞ্চলে বিমান হামলা, নিহত ৭১ গাজার ৭০ হাজারের বেশি মানুষ হেপাটাইটিসে আক্রান্ত নেপালে ১৬ বছরে ১৪ বার সরকার বদল? যুক্তরাষ্ট্রে বিশ্বকাপ আয়োজন করে কোটি টাকা খুইয়েছে আইসিসি ‘পদক নয়, নিজেদের উন্নতি করতে অলিম্পিকে যাচ্ছে বাংলাদেশ’ সংবাদ সম্মেলনে আসছেন প্রধানমন্ত্রী কোটা সংস্কার : শিক্ষার্থীদের নতুন কর্মসূচি ঘোষণা

গ্যাস উত্তোলন বাড়ানোর পরিকল্পনা করা হয়েছে: জ্বালানি সচিব

রিপোর্টারের নাম :
আপডেট : আগস্ট ১৪, ২০২২
গ্যাস উত্তোলন বাড়ানোর পরিকল্পনা করা হয়েছে: জ্বালানি সচিব

আগামী ৫ বছরে এক হাজার এমএমসিএফটি গ্যাস উত্তোলন বাড়ানোর পরিকল্পনা করা হয়েছে বলে জানান বিদ্যুৎ, জ্বালানি ও খণিজ সম্পদ মন্ত্রণালয়ের সিনিয়র সচিব মো. মাহবুব হোসেন। রোববার (১৪ আগস্ট) বিদ্যুৎ ভবনে ‘বাংলাদেশের জ্বালানি নিরাপত্তা: অস্থির বিশ্ববাজার’ শীর্ষক এক সেমিনারে তিনি এসব কথা বলেন।

এই লক্ষ্য বাস্তবায়নে ২০২৫ সাল নাগাদ ৪৬টি কূপ কুপ খনন করে ৬১৮ এমএমসিএফটি গ্যাস পাওয়ার আশা ব্যক্ত করেন তিনি।
তিনি বলেন, প্রধানমন্ত্রীর নির্দেশনায় আমরা বেশকিছু বেশকিছু পরিকল্পনা গ্রহণ করা হয়েছে। এছাড়া উত্তোলন ও ওয়ার্ক ওভারের মাধ্যমে উত্তোলন বাড়ানোর পরিকল্পনা হাতে নেওয়া হয়েছে। তারপরও এলএনজি নির্ভরতা কিছুটা থাকবে। কতটা নির্ভরশীল হতে হবে তা নির্ভর করবে গ্যাস উত্তোলনের ওপর।

তিনি বলেন, ২০২৭-২৮ সালের মধ্যে এক হাজার এমএমসিএফটি গ্যাস জাতীয় পর্যায়ে যুক্ত করতে কাজ করছে সরকার। ভোলা থেকেও গ্যাস উত্তোলনে কাজ করা হচ্ছে।

বিদ্যুৎ, জ্বালানি ও খনিজ সম্পদ প্রতিমন্ত্রী নসরুল হামিদ বলেন, বিশেষজ্ঞরা কেউ বলছেন, গ্যাস আছে কেউ বলছেন নেই। সমস্যাটা হলো আমরা তো তাদের কথার ভিত্তিতেই সিদ্ধান্ত নেই।

নসরুল হামিদ বলেন, সরকার সব সময় চায় গ্যাস উত্তোলন করতে। তাই গভীর সমুদ্রে তিন কোম্পানিকে দিয়ে কাজ করানো হচ্ছে। তারা তাদের লাভ দেখেই কাজ করে, তারা লাভ না থাকলে কাজ করেনা। তখন আমাদের কিছূ করার থাকে না।

জ্বালানি বিশেষজ্ঞ ও ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের ভূতত্ত্ব বিভাগের অধ্যাপক বদরুল ইমাম, ক্যাবের জ্বালানি বিষয়ক উপদেষ্টা অধ্যাপক এম শামসুল আলম। এছাড়া পেট্রোবাংলা, বিদ্যুৎ উন্নয়ন বোর্ডসহ জ্বালানি বিভাগের কর্মকর্তারা সেমিনারে উপস্থিত ছিলেন।


এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ