শনিবার, ২৫ মে ২০২৪, ০৯:০৫ অপরাহ্ন
সংবাদ শিরোনাম :
রোববার যে সময়ে আঘাত হানবে ঘূর্ণিঝড় ‘রিমাল’ গ্রুপ ‘সি’: চমকে দিতে চায় উগান্ডা-পাপুয়া নিউগিনি এফএ কাপের ফাইনালে ম্যানচেস্টার ডার্বি উপকূলীয় এলাকায় লঞ্চ চলাচল বন্ধের নির্দেশ আনারের মাংসের ‘কিমা’ বানিয়ে কমোডে ফ্ল্যাশ করে খুনীরা আনারের মরদেহের পাশে বসেই খাবার খান হত্যাকারীরা বিশ্বজুড়ে গড় আয়ু কমেছে প্রায় ২ বছর : ডব্লিউএইচও সাম্প্রদায়িক সম্প্রীতি রক্ষায় কাজ করছে সরকার: প্রধানমন্ত্রী আসছে ১০ নম্বর মহাবিপদ সংকেত টাকা পাচারের অভিযোগ দেরিতে আসায় ব্যবস্থা নিতে বেগ পেতে হচ্ছে: দুদক পাকিস্তানে মূল্যস্ফীতি বাড়ায় হিমশিম খাচ্ছে চাকরিজীবীরাও রাফা-গাজায় ইসরায়েলি হামলায় নিহত ৬০ এমপি আনারকে আগেও দুবার খুনের পরিকল্পনা হয়: ডিবি দুর্নীতি প্রশ্রয়দাতাদেরও বিচার করতে হবে : ১২ দলীয় জোট ‘বিদ্যুৎ-পানি ব্যবহারে সাশ্রয়ী হোন’

চুয়েট বন্ধ ঘোষণা, শিক্ষার্থীদের হল ছাড়ার নির্দেশ

চট্টগ্রাম প্রতিবেদক
আপডেট : জুন ১৪, ২০২২
চুয়েট বন্ধ ঘোষণা, শিক্ষার্থীদের হল ছাড়ার নির্দেশ

চট্টগ্রাম প্রকৌশল ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ে (চুয়েট) ছাত্রলীগের দু’পক্ষের মারামারি এবং বাস চলাচল বন্ধ করে দেওয়ার পর স্নাতক পর্যায়ের ক্লাস ও পরীক্ষা ৭ই জুলাই পর্যন্ত বন্ধ ঘোষণা করা হয়েছে। আজ মঙ্গলবার (১৪ই জুন) বিকাল ৫টার মধ্যে ছাত্রদের এবং ছাত্রীদের বুধবার (১৫ই জুন) সকাল ১০টার মধ্যে হল ছাড়ার নির্দেশ দেওয়া হয়েছে।

ছাত্রলীগের একটি অংশ মঙ্গলবার সকালে বিশ্ববিদ্যালয়ের বাস চলাচল বন্ধ করে দিলে ক্যাম্পাসে চরম উত্তেজনার মধ্যে দুপুরে উপাচার্যের সভাপতিত্বে বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষের ‘জরুরি সভায়’ এই সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়। স্নাতক পর্যায়ের সব শিক্ষা কার্যক্রম বন্ধ ঘোষণা করা হলেও স্নাতকোত্তর পর্যায়ের একাডেমিক কার্যক্রম অব্যাহত থাকবে বলে বিশ্ববিদ্যালয়ের এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে জানানো হয়েছে।

বিশ্ববিদ্যালয়ের রেজিস্ট্রার (অতিরিক্ত দায়িত্ব) অধ্যাপক ড. ফারুক-উজ-জামান চৌধুরী স্বাক্ষরিত এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়, ১৪ই জুন থেকে আগামী ৭ই জুলাই পর্যন্ত বিশ্ববিদ্যালয়ের স্নাতক পর্যায়ের পরীক্ষাসহ সব একাডেমিক কার্যক্রম এবং আবাসিক হলগুলো বন্ধ ঘোষণা করা হলো।

আপাতত ৭ই জুলাই পর্যন্ত বন্ধ ঘোষণা করা হলেও এরপর শুরু হবে কোরবানির ঈদের ছুটি। ফলে ১৪ই জুলাই ঈদের ছুটি শেষ হলে তার পর স্নাতকের শিক্ষা কার্যক্রম শুরু হবে। বিশ্ববিদ্যালয়ের সব অনুষদের ডিন, ইনস্টিটিউটের পরিচালক, রেজিস্ট্রার, বিভাগীয় প্রধান, প্রভোস্ট এবং ছাত্রকল্যাণ পরিচালক উপস্থিত ছিলেন ওই জরুরি সভায়।


এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ