সোমবার, ২৪ জুন ২০২৪, ০৪:০৩ পূর্বাহ্ন
সংবাদ শিরোনাম :
‘ষড়যন্ত্র মোকাবেলা করেই দেশ এগিয়ে নিচ্ছি’ রাষ্ট্রপতির সঙ্গে নবনিযুক্ত সেনাপ্রধানের সাক্ষাৎ র‍্যাঙ্ক ব্যাজ পরানো হয়েছে নবনিযুক্ত সেনাপ্রধানকে পুলিশ অ্যাসোসিয়েশনের বিবৃতি দুর্নীতি উৎসাহিত করবে: ডিআরইউ মতিউর রহমানের বিরুদ্ধে দুদকের অনুসন্ধান শুরু খালেদা জিয়ার শারীরিক অবস্থার খোঁজ নিতে এভার কেয়ারে রিজভী তিস্তা নদী বা যৌথ নদী ব্যবস্থাপনা নিয়ে আলোচনা হয়েছে: পররাষ্ট্রমন্ত্রী সেনাপ্রধান হিসেবে দায়িত্ব গ্রহণ করলেন ওয়াকার-উজ-জামান বেনজীর ও তার স্ত্রী-সন্তানের ১০ বিও হিসাব অবরুদ্ধ জীবন-মৃত্যুর সন্ধিক্ষণে খালেদা জিয়া: মির্জা ফখরুল দোশের ১৪ জেলায় নতুন পুলিশ সুপার নিয়োগ সময় নিয়েও দুদকে হাজির হলেন না বেনজীর এনবিআর থেকে সরিয়ে দেওয়া হলো ছাগলকাণ্ডের মতিউরকে খালেদা জিয়ার হৃদযন্ত্রে পেস মেকার বসানোর কাজ চলছে: আইনমন্ত্রী নেতানিয়াহুর পদত্যাগের দাবিতে তেল আবিবে বিক্ষোভ

জাপা মহাসচিব হলেন মুজিবুল হক চুন্নু

রিপোর্টারের নাম :
আপডেট : অক্টোবর ৯, ২০২১

বৃত্তান্ত প্রতিবেদক: দলের কো-চেয়ারম্যান মুজিবুল হক চুন্নুকে জাতীয় পার্টির (জাপা) মহাসচিব নিয়োগ দিয়েছেন দলটির চেয়ারম্যান জি এম কাদের।

শনিবার বিকেলে  জাতীয় পার্টির গঠনতন্ত্রের ২০/১ (১)ক উপধারার ক্ষমতাবলে চুন্নুকে মহাসচিব পদে নিয়োগ দেন। ওই নিয়োগ আদশে ৯ অক্টোবর শনিবার থেকেই কার্যকর হবে বলে আদেশে বলা হয়।

২ অক্টোবর জাপার মহাসচিব জিয়াউদ্দিন আহমেদ বাবলুর মৃত্যুতে মহাসচিবের পদ শূন্য হয়। এর পরপরই মহাসচিবের পদ নিয়ে জ্যেষ্ঠ নেতারা নানামুখী তৎপরতা চালান।

জাপার সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়, জাতীয় পার্টির চেয়ারম্যান ও সংসদে বিরোধীদলীয় উপনেতা গোলাম মোহাম্মদ কাদের এক সাংগঠনিক আদেশে দলের কো-চেয়ারম্যান মুজিবুল হক চুন্নুকে পার্টির মহাসচিব হিসেবে নিয়োগ প্রদান করেছেন।

দলটির চেয়ারম্যান জিএম কাদের মহাসচিব পদে দলের তরুণ সাংসদ শামীম হায়দার পাটোয়ারীকে নিয়োগ দিতে চাইলে জ্যেষ্ঠ নেতারা এর বিপক্ষে অবস্থান নেন। পরে জাপার চেয়ারম্যান তার অবস্থান থেকে সরে আসেন।

সূত্র জানায়, মহাসচিব পদের জন্য মুজিবুল হক চুন্নু ছাড়াও দলের সাবেক দুই মহাসচিব রুহুল আমিন হাওলাদার ও মসিউর রহমান রাঙ্গা এবং ঢাকার সাংসদ সৈয়দ আবু হোসেন বাবলা, অতিরিক্ত মহাসচিব সাইদুর রহমান টেপা ও শামীম হায়দার পাটোয়ারী, সাবেক প্রেসিডিয়াম সদস্য গোলাম মসী মহাসচিব হওয়ার জন্য আগ্রহ দেখান।

কিন্তু কেউ সরাসরি নিজের আগ্রহের কথা না বলে নানাভাবে চেষ্টা-তৎপরতা চালান। শেষ পর্যন্ত মুজিবুল হককেই বেছে নিলেন জি এম কাদের।

প্রতিক্রিয়া জানতে চাইলে মুজিবুল হক বলেন, ‘পার্টির চেয়ারম্যান গঠনতন্ত্রের ক্ষমতাবলে আমাকে মহাসচিব পদে নিযুক্ত করেছেন। তিনি আমার ওপর যে আস্থা রেখেছেন, আমি তার মর্যাদা রাখব। আমার লক্ষ্য হবে দলকে শক্তিশালী করে আগামী জাতীয় সংসদ নির্বাচনে ৩০০ আসনে প্রার্থী দেওয়া এবং দলকে ক্ষমতায় নেওয়া।’

নিম্ব আদালনের বিচারক হিসেবে সরকারি চাকরি ছেড়ে সাবেক রাষ্ট্রপতি এইচএম এরশাদের হাত ধরে রাজনীতিতে অভিষিক্ত মুজিবুল হক কিশোরগঞ্জ-৩ আসনের সাংসদ।

তিনি শ্রম ও কর্মসংস্থান মন্ত্রণালয়–সম্পর্কিত সংসদীয় স্থায়ী কমিটির সভাপতি। তিনি আওয়ামী লীগের নেতৃত্বাধীন মহাজোট সরকারের শ্রম ও কর্মসংস্থান প্রতিমন্ত্রী ছিলেন।


এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ