বৃহস্পতিবার, ১৩ জুন ২০২৪, ০৭:৩৩ পূর্বাহ্ন
সংবাদ শিরোনাম :
যুক্তরাষ্ট্রেকে হারিয়ে সুপার এইটে ভারত বাংলাদেশের ওপর ভিসা নিষেধাজ্ঞা তুলে নি‌ল ওমান তিস্তা মহাপরিকল্পনার বর্তমান পরিস্থিতি জানালেন প্রধানমন্ত্রী ২১ আগস্ট গ্রেনেড হামলার পলাতক আসামিদের গ্রেপ্তারের চেষ্টা চলছে : প্রধানমন্ত্রী দেশের অর্থনীতি-রাজনীতি ধ্বংস করেছে সরকার : মির্জা ফখরুল বেনজিরের আরও সম্পত্তি ক্রোকের নির্দেশ কুয়েতে শ্রমিক আবাসন ভবনে আগুন, নিহত ৪১ এমপি আনার হত্যার তদন্ত সঠিক পথেই এগুচ্ছে: স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী ড. ইউনূসকে বিচারের নামে হয়রানি করা হচ্ছে: ব্যারিস্টার খোকন বিচার প্রক্রিয়া সম্পর্কে ড. ইউনূসের বক্তব্য অসত্য: আইনমন্ত্রী আদালতে খাঁচার ভেতর দাঁড়িয়ে থাকা অপমানজনক: ড. ইউনূস মূল্যস্ফীতির হার সাড়ে ৬ শতাংশে নামানো অবাস্তব: সিপিডি বঙ্গবন্ধুর সমাধিতে বিমান বাহিনীর প্রধানের শ্রদ্ধা পশ্চিম তীরে ইসরায়েলি অভিযানে ৬ ফিলিস্তিনি নিহত সবচেয়ে শান্তিপূর্ণ দেশের তালিকায় তৃতীয় বাংলাদেশ

ধর্ষণের বিরুদ্ধে গর্জে উঠলেন শ্রীলেখা

রিপোর্টারের নাম :
আপডেট : ডিসেম্বর ১০, ২০২০
ধর্ষণের বিরুদ্ধে গর্জে উঠলেন শ্রীলেখা

পাঁচ সন্তানের জননীকে গণধর্ষণের অভিযোগ উঠেছে ১৭ জন মদ্যপের বিরুদ্ধে। অভিযোগ, স্বামীর সঙ্গে হাট থেকে ফিরছিলেন ওই মহিলা। তখনই তার উপর নির্যাতন চালানো হয় বলে অভিযোগ। ঝাড়খণ্ডের দুমকার সেই ঘটনার প্রেক্ষিতে আবার RJD নেতা শিবানন্দ তিওয়ারি বক্তব্য, “ধর্ষণের মানসিকতা তৈরি করে সিনেমার আইটেম ডান্স, চটুল বিজ্ঞাপন এবং ফোনের পর্নোগ্রাফি।”

এ তো গেল ঝাড়খণ্ডের কথা। সপ্তাহখানেক আগেই এই শহরের নিউটাউনে ১৭ বছরের এক নাবালিকাকে ধর্ষণের শিকার হতে হয়েছে। পুরুষসঙ্গী ছিল তার সঙ্গে। তাকে মারধর করে অন্ধকারাচ্ছন্ন একটি ঝোপে টেনে নিয়ে গিয়ে নাবালিকার উপর অকথ্য অত্যাচার চালানো হয় বলে অভিযোগ। সেই ঘটনা শেয়ার করেই ধর্ষণের মতো ঘৃণ্য অপরাধের বিরুদ্ধে ফেসবুকে সোচ্চার হলেন অভিনেত্রী শ্রীলেখা মিত্র।

বৃহস্পতিবার নিজের ফেসবুক প্রোফাইলে এই ঘটনার খবর শেয়ার করেন শ্রীলেখা মিত্র। তীব্র ক্ষোভ প্রকাশ করে নিজের ওয়ালে অভিনেত্রী লেখেন, “আমাদের সিটি অফ জয়… আমার অত্যন্ত রাগ হচ্ছে, একজন নারী আর এক উঠতি বয়সের নাবালিকার মা হিসেবে অসহায় লাগছে। কেন… কেন… কেন?”

শ্রীলেখার এই পোস্টে আবার অনেকে আবার হাসির ইমোজি দেন কেউ কেউ। তা নিয়েও ক্ষোভ প্রকাশ করেন অভিনেত্রী। এর জবাবে অভিজিৎ কুণ্ডু নামে একজন লেখেন, তিনি এক নেটিজেনকে ভালবাসার ইমোজি দিতে দেখেছেন। এর কারণ হিসেবে সঞ্চারি নামের আরেকজন লেখেন, এমন মানুষরা হয়তো একই রোগে আক্রান্ত। ধর্ষণের মতো রোগ সমাজের নানা স্তরে বাসা বেঁধেছে। এর বিরুদ্ধে ক্ষোভ প্রকাশ করেছেন অনেকেই। কেউ কেউ এই ঘটনাকে ‘ভয়ানক’ আখ্যা দিয়েছেন, কেউ কেউ আবার হতাশা প্রকাশ করেছেন।


এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ