শুক্রবার, ০৯ ডিসেম্বর ২০২২, ১০:৩৭ অপরাহ্ন
সংবাদ শিরোনাম :
নিউইয়র্ক টাইমসের কর্মীরা ৪০ বছরের মধ্যে প্রথম ধর্মঘটে রাজধানীর গোলাপবাগে সমাবেশের অনুমতি পেল বিএনপি একাদশ শ্রেণিতে ক্লাস শুরু ১ ফেব্রুয়ারি দুর্নীতি বন্ধে রাজনৈতিক সদিচ্ছার অভাব- টিআইবি রংপুর-ঢাকা বাস চলাচল বন্ধ ঢাকার প্রবেশ পথগুলোতে নিরাপত্তা জোরদার স্যুটকেসে কাপড়-ওষুধ নিয়ে প্রস্তুত: আ স ম আবদুর রব জ্বালানি বিনিয়োগে বেইজিং-রিয়াদ সমঝোতা ইউক্রেনের বিদ্যুৎ অবকাঠামোতে আরো হামলার অঙ্গীকার পুতিনের জিজ্ঞাসাবাদের জন্য ফখরুল-আব্বাস ডিবির হেফাজতে বিশ্বমন্দার ধাক্কা বাংলাদেশে লাগবে না- প্রধানমন্ত্রী আমার বিয়ে আর হবে না: নুসরাত ফারিয়া ফের আলোচনায় তনুশ্রীর বোন ঈশিতা ফখরুল-আব্বাসকে আটক রাজনৈতিক প্রতিহিংসার বহিঃপ্রকাশ: মোশাররফ বন্দি বিনিময় করলো রাশিয়া-যুক্তরাষ্ট্র

ধর্ষণের বিরুদ্ধে গর্জে উঠলেন শ্রীলেখা

রিপোর্টারের নাম :
আপডেট : ডিসেম্বর ১০, ২০২০
ধর্ষণের বিরুদ্ধে গর্জে উঠলেন শ্রীলেখা

পাঁচ সন্তানের জননীকে গণধর্ষণের অভিযোগ উঠেছে ১৭ জন মদ্যপের বিরুদ্ধে। অভিযোগ, স্বামীর সঙ্গে হাট থেকে ফিরছিলেন ওই মহিলা। তখনই তার উপর নির্যাতন চালানো হয় বলে অভিযোগ। ঝাড়খণ্ডের দুমকার সেই ঘটনার প্রেক্ষিতে আবার RJD নেতা শিবানন্দ তিওয়ারি বক্তব্য, “ধর্ষণের মানসিকতা তৈরি করে সিনেমার আইটেম ডান্স, চটুল বিজ্ঞাপন এবং ফোনের পর্নোগ্রাফি।”

এ তো গেল ঝাড়খণ্ডের কথা। সপ্তাহখানেক আগেই এই শহরের নিউটাউনে ১৭ বছরের এক নাবালিকাকে ধর্ষণের শিকার হতে হয়েছে। পুরুষসঙ্গী ছিল তার সঙ্গে। তাকে মারধর করে অন্ধকারাচ্ছন্ন একটি ঝোপে টেনে নিয়ে গিয়ে নাবালিকার উপর অকথ্য অত্যাচার চালানো হয় বলে অভিযোগ। সেই ঘটনা শেয়ার করেই ধর্ষণের মতো ঘৃণ্য অপরাধের বিরুদ্ধে ফেসবুকে সোচ্চার হলেন অভিনেত্রী শ্রীলেখা মিত্র।

বৃহস্পতিবার নিজের ফেসবুক প্রোফাইলে এই ঘটনার খবর শেয়ার করেন শ্রীলেখা মিত্র। তীব্র ক্ষোভ প্রকাশ করে নিজের ওয়ালে অভিনেত্রী লেখেন, “আমাদের সিটি অফ জয়… আমার অত্যন্ত রাগ হচ্ছে, একজন নারী আর এক উঠতি বয়সের নাবালিকার মা হিসেবে অসহায় লাগছে। কেন… কেন… কেন?”

শ্রীলেখার এই পোস্টে আবার অনেকে আবার হাসির ইমোজি দেন কেউ কেউ। তা নিয়েও ক্ষোভ প্রকাশ করেন অভিনেত্রী। এর জবাবে অভিজিৎ কুণ্ডু নামে একজন লেখেন, তিনি এক নেটিজেনকে ভালবাসার ইমোজি দিতে দেখেছেন। এর কারণ হিসেবে সঞ্চারি নামের আরেকজন লেখেন, এমন মানুষরা হয়তো একই রোগে আক্রান্ত। ধর্ষণের মতো রোগ সমাজের নানা স্তরে বাসা বেঁধেছে। এর বিরুদ্ধে ক্ষোভ প্রকাশ করেছেন অনেকেই। কেউ কেউ এই ঘটনাকে ‘ভয়ানক’ আখ্যা দিয়েছেন, কেউ কেউ আবার হতাশা প্রকাশ করেছেন।


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ