বৃহস্পতিবার, ০৮ ডিসেম্বর ২০২২, ০১:২১ অপরাহ্ন
সংবাদ শিরোনাম :
খাবারে বিষক্রিয়ায় ইরানে অসুস্থ ১২০০ পল্টনের বিএনপি অফিস খুলে দেয়ার দাবি ফখরুলের ৩ দিনের সফরে সৌদিতে চীনা প্রেসিডেন্ট বিএনপি দেশে আগুনসন্ত্রাস শুরু করেছে : ওবায়দুল কাদের খেলা বন্ধ করেন, নয়তো পরিস্থিতি কারো নিয়ন্ত্রণে থাকবে না : কর্ণেল অলি নাশকতার মামলায় হাজিরা দিলেন মির্জা ফখরুলসহ পাঁচ নেতা চট্টগ্রামে পরিবহন ধর্মঘট, ভোগান্তিতে সাধারণ মানুষ পেরুর নতুন প্রেসিডেন্ট দিনা বলুআর্তে বিশ্বে করোনায় ২৪ ঘণ্টায় ১১৭৪ জনের মৃত্যু মস্কো আগ বাড়িয়ে পরমাণু অস্ত্র ব্যবহার করবে না : পুতিন আফগানিস্তানে প্রকাশ্যে ‘জঘণ্য’ মৃত্যুদন্ড কার্যকরের নিন্দা যুক্তরাষ্ট্রের ক্ষমতাচ্যুত হওয়ার পরই পেরুর প্রেসিডেন্ট আটক মেসিকে নিয়ে এবার মুখ খুললেন ডাচ কোচ ফন হাল ম্যানইউর ১১ ফুটবলার খেলছেন বিশ্বকাপের কোয়ার্টার ফাইনালে ইনজুরির গুঞ্জন উড়িয়ে যা বললেন ডি পল

বছরের শেষদিকে মালয়েশিয়ায় পৌঁছবে ৫২,০০০ শ্রমিক: এমপিওএ

রিপোর্টারের নাম :
আপডেট : মে ৩০, ২০২২
This picture taken on August 16, 2019 shows workers loading palm oil fruits onto a truck at a plantation in the Nagan Raya district in Aceh province. - Indonesia has filed a World Trade Organization lawsuit against the European Union over plans to phase out palm oil-based biofuel for cars, the trade ministry said. (Photo by CHAIDEER MAHYUDDIN / AFP) (Photo by CHAIDEER MAHYUDDIN/AFP via Getty Images)

মালয়েশিয়া পাম অয়েল অ্যাসোসিয়েশন (এমপিওএ) প্রত্যাশা করছে, চলতি বছরের শেষদিকে দেশটিতে ৫২ হাজার শ্রমিক পৌঁছবে। তবে সুষ্ঠুভাবে কৃষিজপণ্যটি উৎপাদনের জন্য তা যথেষ্ট নয়। বার্তা সংস্থা রয়টার্সের বরাত দিয়ে চ্যানেল নিউজ এশিয়ার এক প্রতিবেদনে এ তথ্য উঠে এসেছে।

বিশ্বের দ্বিতীয় শীর্ষ পাম অয়েল উৎপাদনকারী দেশ মালয়েশিয়া। তবে সাম্প্রতিক সময়ে শ্রমিক সঙ্কটে দেশটিতে এ পণ্য উৎপাদন ব্যাহত হচ্ছে।

মালয়েশিয়ায় পাম ফল চাষে কাজ করতেন অধিকাংশ ইন্দোনেশিয়ার শ্রমিক। তবে করোনাকালে তাদের বেশিরভাগই দেশে ফিরে এসেছেন। ফলে সেখানে উদ্ভিজ্জ পণ্যটির উৎপাদন বাধাগ্রস্ত হচ্ছে।

রাশিয়া-ইউক্রেন যুদ্ধের জেরে বিশ্বব্যাপী ভোজ্যতেলের সরবরাহ সঙ্কট দেখা দিয়েছে। এতে বিশ্ববাজারে নিত্যপণ্যটির দাম বেড়ে গেছে। তবে শ্রমিক সঙ্কটে সেই সুবিধা নিতে পারছে না মালয়েশিয়া। কয়েক বছরের মধ্যে দেশটিতে পাম অয়েল উৎপাদন সবচেয়ে কমেছে।

এমপিওএ প্রধান নির্বাহী নাগেব ওয়াহাব রয়টার্সকে বলেন, ২০ হাজার বিদেশি শ্রমিককে মালয়েশিয়ায় প্রবেশের অনুমতি দিয়েছে দেশের সরকার। করোনা মহামারিতে সীমান্ত বন্ধ হওয়ার আগে তাদের আবেদন অনুমোদন হয়েছিল। পাশাপাশি চলমান সঙ্কট কাটাতে ৩২ হাজার বিদেশি শ্রমিক নেয়া হচ্ছে। এরই মধ্যে কিছু শ্রমিক দেশে ঢুকে পড়েছে।

তিনি বলেন, ‘আমরা এই মুহূর্তে ভয়াবহ পরিস্থিতির মধ্যে আছি। মালয়েশিয়ায় পাম অয়েল চাষাবাদে ১ লাখেরও বেশি শ্রমিক সঙ্কট রয়েছে। তবে সুখবর হচ্ছে, আগামী জুলাইয়ের মধ্যে একটি বড় সংখ্যক শ্রমিক দেশে আসছে।’

২০২০ সালের এপ্রিল পর্যন্ত মালয়েশিয়ার পাম অয়েল শিল্পে ৩ লাখ ৩৭ হাজার বিদেশি শ্রমিক কাজ করতেন। এর মধ্যে অধিকাংশ করোনাকালে দেশে ফিরে গেছেন। এছাড়া এ পরিস্থিতিতে নানা বিধিনিষেধ আরোপ করায় নতুন শ্রমিক নেয়া হয়নি।


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ