শনিবার, ১৩ এপ্রিল ২০২৪, ১২:৫৫ পূর্বাহ্ন
সংবাদ শিরোনাম :
দেশবাসীকে বাংলা নববর্ষের শুভেচ্ছা প্রধানমন্ত্রীর চৈত্র সংক্রান্তি শনিবার আওয়ামী লীগ পুলিশ লীগে পরিণত: মির্জা ফখরুল `বিএনপি ককটেল পার্টি করেনি, ইফতার পার্টি করেছে’ ইরান-ইসরায়েলকে সংযত থাকার আহ্বান রাশিয়াসহ পরাশক্তিগুলোর যুদ্ধের জন্য প্রস্তুত হওয়ার বার্তা কিমের দুই ম্যাচ নিষিদ্ধ রোনালদো ৪ জেলায় সড়ক দুর্ঘটনায় ১০ জনের মৃত্যু ভারতীয় পণ্য বর্জন, বিএনপির রাজনৈতিক কর্মসূচী নয়: খসরু সর্বোচ্চ গোলদাতার লড়াইয়ে চলছে টান টান উত্তেজনা আটলান্টার কাছে বড় ব্যবধানে হারলো লিভারপুল রেকর্ড ১৭টি `ডাক` ইনিংস ম্যাক্সওয়েলের বৈদেশিক মুদ্রার রিজার্ভ বেড়ে ২০ বিলিয়ন ডলারের উপরে পার্বত্য চট্টগ্রামে বৈসাবী উৎসব শুরু কমেনি মুরগির দাম, বেড়েছে সবজির

বর্ণবিদ্বেষের অভিযোগ থেকে মুক্ত হলেন স্মিথ

রিপোর্টারের নাম :
আপডেট : এপ্রিল ২৬, ২০২২

অবশেষে বর্ণবিদ্বেষের অভিযোগ থেকে মুক্ত হলেন দক্ষিণ আফ্রিকার সাবেক অধিনায়ক ও ক্রিকেট দক্ষিণ আফ্রিকার (সিএসএ) সাবেক পরিচালক গ্রায়েম স্মিথ। জাস্টিস অ্যান্ড নেশন-বিল্ডিং (এসজেএন) কমিশনের দুই সদস্যের এক নিরপেক্ষ কমিটি তদন্তের পর এ অভিযোগ থেকে মুক্তি পান তিনি।

দক্ষিণ আফ্রিকার বেশ কিছু সাবেক ক্রিকেটারে বিরুদ্ধে বর্ণবাদের প্রশ্ন তুলেছিল এসজেএন বিভাগ। সেই তালিকায় স্মিথের সঙ্গে ছিলেন দক্ষিণ আফ্রিকার কোচ মার্ক বাউচার ও সাবেক অধিনায়ক এবি ডি ভিলিয়ার্সও। মূল অভিযোগ ছিল কৃষ্ণাঙ্গ খেলোয়াড় ও কোচদের জাতীয় দলে নির্বাচন না করে তাদের প্রতি বৈষম্য করেছেন তারা।

গত বছরের ডিসেম্বরে ২৩৫ পৃষ্ঠার এক প্রতিবেদন দিয়ে স্মিথ, বাউচার এবং ডি ভিলিয়ার্সকে জাতিগত বৈষম্যের অভিযোগ করেন ডুমিসা এনটাসেবেজার নেতৃত্বাধীন এসজেএন কমিশন। এর পর আনুষ্ঠানিক তদন্ত শুরু করে সিএসএ।

তদন্ত শেষে এক বিবৃতিতে দক্ষিণ আফ্রিকা ক্রিকেট বোর্ডের চেয়ারপার্সন লাওসন নাইডু বলেন, ‘স্বচ্ছতার সঙ্গে পুরো বিষয়টি বিবেচনা করা হয়েছে। অত্যন্ত গুরুত্ব দিয়ে স্পর্শকাতর এই বিষয় নিয়ে কাজ করেছে সিএসএ। প্রতিটি পদক্ষেপে এবং স্তরে সতর্কতার সঙ্গে স্বচ্ছতা বজায় রাখা হয়েছে। সমস্ত প্রক্রিয়া শেষে নির্দোষ প্রমাণিত হয়েছে স্মিথ।’

দক্ষিণ আফ্রিকার ক্রিকেটে স্মিথের অনন্য অবদানের জন্য স্বীকৃতি দেয়ার তাগিদ দেন নাইডু, ‘দক্ষিণ আফ্রিকা ক্রিকেটে এখন ওর অবদানকে স্বীকৃতি দেয়া প্রয়োজন। দীর্ঘকাল ধরে প্রোটিয়া টেস্ট দলকে নেতৃত্ব দেয়ার নজির গড়েছে স্মিথ। ২০১৯ থেকে ২০২২ সাল পর্যন্ত দক্ষিণ আফ্রিকার ডিরেক্টর অফ ক্রিকেট হিসাবেও দারুণ কাজ করেছে স্মিথ।’

উল্লেখ্য, গত মার্চ মাস পর্যন্ত দক্ষিণ আফ্রিকার ক্রিকেট সংস্থার ডিরেক্টর অফ ক্রিকেট ছিলেন স্মিথ।

স্মিথের বিপক্ষে তিনটি বর্ণবাদের অভিযোগ ছিল। ২০১২ থেকে ২০১৪ সাল পর্যন্ত বোর্ডের কেন্দ্রীয় চুক্তিতে ছিলেন উইকেটরক্ষক থামি সোলেকাইল। তবে তাকে সে সময় কোনো টেস্ট খেলানো হয়নি। এ ক্ষেত্রে বর্ণবৈষম্যমূলক আচরণ করেছিলেন সে সময়ের অধিনায়ক স্মিথ, অভিযোগ ছিল এমন।

এদিকে স্মিথ রেহাই পেলেও বাউচার অসদাচরণের অভিযোগের শুনানির মুখোমুখি হবেন সামনের মাসে। এ অভিযোগ প্রমাণিত হলে বাউচারকে সরিয়ে দেবে ক্রিকেট দক্ষিণ আফ্রিকা। ২০২৩ সালের বিশ্বকাপ পর্যন্ত বাউচারের সঙ্গে চুক্তি আছে তাদের।


এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ