বৃহস্পতিবার, ২২ ফেব্রুয়ারী ২০২৪, ০৬:০১ অপরাহ্ন
সংবাদ শিরোনাম :
পেঁয়াজ রপ্তানিতে নিষেধাজ্ঞা তুলছেনা ভারত শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে টেস্ট থেকেও সরে দাঁড়ালেন সাকিব দেশে অনেক ছোট দল আছে, বিএনপি তেমন একটি : স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী সাবেক স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আলতাফের জামিন মঞ্জুর, মুক্তিতে বাধা নেই দখলদার সরকার ঐতিহ্যগতভাবেই জনগণকে শত্রুপক্ষ ভাবে: রিজভী আন্তর্জাতিক কোরআন প্রতিযোগিতায় প্রথম বাংলাদেশি হাফেজ ৫ লাখ শিক্ষক-কর্মচারীকে ৬ মাসের মধ্যে অবসর সুবিধা প্রদানের নির্দেশ প্রধানমন্ত্রীকে ইউরোপীয় কমিশনের প্রেসিডেন্টের অভিনন্দন পোশাক রপ্তানির লক্ষ্য অর্জন নিয়ে শঙ্কা দেশের মানুষের ভাগ্য উন্নয়নে কাজ করে যাচ্ছে আ. লীগ: প্রধানমন্ত্রী যাবজ্জীবন সাজাপ্রাপ্ত জি কে শামীমের জামিন দারুণ জয়ে মৌসুম শুরু ইন্টার মায়ামির মেসির রেকর্ডটা ভেঙে দিলেন লেভানদফস্কি হাসপাতালে বোমা হামলা চালিয়েছে মিয়ানমার সেনা রাশিয়াকে অত্যাধুনিক ৪০০ ক্ষেপণাস্ত্র পাঠিয়েছে ইরান

বিবিসির বিরুদ্ধে কর ফাঁকির অভিযোগ ভারতের

রিপোর্টারের নাম :
আপডেট : ফেব্রুয়ারি ১৮, ২০২৩
বিবিসির বিরুদ্ধে কর ফাঁকির অভিযোগ ভারতের

ভারতের কেন্দ্রীয় আয়কর দপ্তর আন্তর্জাতিক সংবাদমাধ্যম ব্রিটিশ ব্রডকাস্টিং করপোরেশনের (বিবিসি) দিল্লি ও মুম্বাই শাখার বিরুদ্ধে কর অনিয়মের সত্যতা পেয়েছে। গতকাল শুক্রবার ভারতে আয়কর অধিদপ্তরের পক্ষ থেকে এক বিবৃতিতে এই দাবি করা হয়।

বিবৃতিতে বলা হয়, একটি প্রথমসারির আন্তর্জাতিক সংবাদমাধ্যম কোম্পানি, যারা হিন্দি, ইংরেজি এবং ভারতের আরও কয়েকটি ভাষায় কনটেন্ট তৈরি করে তাদের দিল্লি ও মুম্বাইয়ের কার্যালয়ে তারা ‘জরিপ’ চালিয়েছে। এই সময় আয়কর ও তথ্য স্থানান্তর উভয়ক্ষেত্রেই বড় ধরনের অনিয়ম পাওয়া যায়।

বিবৃতিতে আরও বলা হয় বিবিসির ভারত শাখা কখনো নিজেদের আয়-ব্যয়ের হিসাব প্রকাশ করেনি। তবে তাদের নথিপত্র ঘেঁটে এসব অনিয়মের বেশ কিছু প্রমাণ পাওয়া গেছে।’

এ বিষয়ে বিবিসির পক্ষ থেকে বলা হয়, তারা আয়কর বিভাগকে সহযোগিতা অব্যাহত রাখবে এবং যদি আয়কর কর্মকর্তারা কোনো বিষয়ে সরাসরি যোগযোগ করতে চান তাহলেও সাড়া দেওয়া হবে।

এর আগে গত মঙ্গলবার হঠাৎ করেই ভারতের দিল্লি ও মুম্বাইয়ে বিবিসির কার্যালয়ে হানা দেন কর কর্মকর্তারা। তিনদিন ধরে দিনরাত সেখানে অবস্থান করে চলেছে তল্লাশি অভিযান। এ সময় দুই কার্যালয়ের ব্যাংক হিসাবের নথিপত্র, ল্যাপটপ ও সংবাদকর্মীদের মোবাইল ফোন জব্দ করে নেন কর্মকর্তারা। তল্লাশি শেষে উভয় কার্যালয় সিলগালা করে দেওয়া হয়।

উল্লেখ্য ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীকে নিয়ে বিবিসি’র বিতর্কিত তথ্যচিত্র যুক্তরাজ্যে সম্প্রচারের কয়েক সপ্তাহ পর এ অভিযান চালানো হয়।


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ