শনিবার, ১৩ অগাস্ট ২০২২, ০৯:২৫ পূর্বাহ্ন
সংবাদ শিরোনাম :
কুষ্টিয়ায় ফিলিং স্টেশনে অগ্নিকাণ্ডে নিহত ২ আলোচিত-সমালোচিত লেখক সালমান রুশদির ওপর হামলা উন্নয়নের নৌকা এখন শ্রীলঙ্কার পথে: জি এম কাদের দেশে করোনায় ২ জনের মৃত্যু, শনাক্ত ২১৮ ভারতবর্ষের সকল ইতিহাসকে ছাপিয়ে গেছে বঙ্গবন্ধুর ইতিহাস : সংস্কৃতি প্রতিমন্ত্রী বঙ্গবন্ধুর নাম কেউ মুছে ফেলতে পারবে না : এনামুল হক শামীম কেনিয়ার টিভি চ্যানেলগুলো বন্ধ করে দিয়েছে ভোটের ফলাফল সম্প্রচার ‘অপ্রীতিকর পরিণতিতে পড়তে যাচ্ছেন পুতিন’ আওয়ামী লীগ মাঠে নামলে বিএনপি পালানোর অলিগলিও খুঁজে পাবে না ‘হারিকেন দিয়েও খুঁজে পাওয়া যাবে না বিএনপিকে’ আন্তর্জাতিক বাজারে স্বর্ণের দর পড়েছে ‘আইএমএফ’ এর কাছে যেসব শর্তে যতবার ঋণ নিয়েছে বাংলাদেশ হারের লজ্জা নিয়ে দেশে ফিরলেন মুশফিক-মাহমুদউল্লাহরা টি-টোয়েন্টিতে ব্রাভোর অনন্য রেকর্ড বাংলাদেশের মানুষ বেহেশতে আছে: পররাষ্ট্রমন্ত্রী

মেয়েদের সাফ অনূর্ধ্ব-১৯ ফুটবলে ভারতকে হারিয়ে চ্যাম্পিয়ন বাংলাদেশ

রিপোর্টারের নাম : / ১৬৫ জন দেখেছেন
আপডেট : ডিসেম্বর ২২, ২০২১
বৃত্তান্ত২৪ অনলাইনের সর্বশেষ খবর পেতে গুগল নিউজ (Google News) ফিডটি অনুসরণ করুন

বৃত্তান্ত ডেস্ক: ম্যাচের বিরতিতে যাওয়ার খানিক আগে পুরো স্টেডিয়ামে জ্বলে উঠল মুঠোফোনের আলো। মনে হচ্ছিল যেন হাজারো জোনাকি জ্বলছে মাঠে। দৃশ্যটাকে প্রতীকীই ধরা যায়। বয়সভিত্তিক ফুটবলেও যে আরও একবার আলো ছড়ালেন বাংলাদেশের মেয়েরা। আজ সন্ধ্যায় কমলাপুর বীরশ্রেষ্ঠ মোস্তফা কামাল স্টেডিয়ামে ফাইনালে ১-০ গোলে হারিয়েছে ভারতকে। একমাত্র গোলটি করেছেন আনাই মগিনি।

২০১৮ সালে ভুটানে হওয়া সর্বশেষ অনূর্ধ্ব-১৮ নারী সাফে চ্যাম্পিয়ন হয়েছিল বাংলাদেশ। সেই টুর্নামেন্টই এবার মেয়েদের বয়স এক বছর বাড়িয়ে আয়োজন করেছে সাফ। এবারও টুর্নামেন্টের ট্রফিটা নিজেদের কাছে রেখে দিয়েছেন বাংলাদেশের মেয়েরা।

১৯ ডিসেম্বর শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে সর্বশেষ ম্যাচটিতে দলের সেরা খেলোয়াড়দের বিশ্রাম দেন কোচ গোলাম রব্বানী। ওই ম্যাচে খেলা সোহাগী কিস্কু, স্বপ্না রানী, আনুচিং মগিনি ও আফঈদা খন্দকারের জায়গায় আজ একাদশে ঢোকেন মনিকা চাকমা, তহুরা খাতুন, ঋতুপর্ণা চাকমা ও নীলুফার ইয়াসমিন।

অভিজ্ঞ আঁখি খাতুন, নীলুফার ইয়াসমিন, শামসুন্নাহার সিনিয়র আর আনাই মগিনির সামনে গিয়ে বাংলাদেশের রক্ষণদেয়াল ভাঙার সাহস হয়নি ভারতীয় ফরোয়ার্ডদের। প্রথমার্ধে বেশির ভাগ সময় বাংলাদেশের ফুটবলারদের পায়ে ঘুরল বল। মাঝমাঠে তো মারিয়া মান্দার পারফরম্যান্স ছিল অসাধারণ! দুই প্রান্ত দিয়ে কখনো ঋতুপর্ণা, কখনো শাহেদা আক্তার আক্রমণে উঠেছেন। তহুরা খাতুন আর মনিকাও বক্সে আতঙ্ক ছড়িয়েছেন।

এই বাংলাদেশের সবচেয়ে বড় শক্তির জায়গা অভিজ্ঞতা। তারুণ্যনির্ভর ভারতীয় মেয়েদের কাছ থেকে বারবার বল কেড়ে নিয়েছেন। কিন্তু শেষ পর্যন্ত গোলের দেখা মিলছিল না বাংলাদেশের। বক্সে ঢুকলেও ফিনিশিংটা ঠিকঠাকমতো হচ্ছিল না।

ম্যাচের ১৪ মিনিটে গোলের সুবর্ণ সুযোগ পায় বাংলাদেশ। বক্সের বাইরে থেকে মারিয়া বল বাড়িয়ে দেন তহুরার উদ্দেশে। বলটি প্রথম চেষ্টায় ধরে ফেলেন ভারতীয় গোলরক্ষক আনশিকা। কিন্তু মুহূর্তেই বলটি তাঁর হাত ফসকে বেরিয়ে যায়। দুই ডিফেন্ডারের ফাঁক গলে ডান পায়ে শট নেন তহুরা। কিন্তু দুর্বল শট হওয়ায় গোললাইনের ওপরে ঘুরতে থাকে বল। অবশ্য গোলের দাবিতে বাংলাদেশের মেয়েরা ঘিরে ধরেন নেপালি রেফারি অঞ্জনা রায়কে। কিন্তু তিনি মেয়েদের কথায় কোনো কানই দেননি।

এরপর ২৫ মিনিটে আনাই মগিনির শট ভারতের পোস্টে লেগে ফেরে। অথচ বক্সে তখন বাংলাদেশের কোনো ফুটবলারই ছিলেন না। এরপর ৪৬ মিনিটেও শামসুন্নাহার জুনিয়রের শট ক্রসবারে লেগে ফেরে।

পুরো ম্যাচে ৬৩ মিনিটে ভারতের একটাই ভালো আক্রমণ ছিল। লিনডা কম সেরতোর হেড অবশ্য সহজেই ধরে ফেলেন বাংলাদেশ গোলরক্ষক।

ম্যাচের ৭৯ মিনিটে কাঙ্ক্ষিত গোলের দেখা পেয়েছে বাংলাদেশ। বক্সের সামান্য বাইরে থেকে শাহেদা আক্তারের দারুণ একটা ব্যাকহিল থেকে বল পেয়ে আনাই নিলেন দুর্দান্ত এক শট। রংধনু শটটি বাঁক নিয়ে ভারতীয় খেলোয়াড় আনশিকার হাতে লেগে ঢোকে জালে। বাকি সময় অবশ্য চেষ্টা করেও আর কোনো দল গোল করতে পারেনি।

জাতীয় দলের সঙ্গে মুখোমুখিতে ভারতের বিপক্ষে বাংলাদেশের মেয়েরা কখনোই জেতেনি। কিন্তু বয়সভিত্তিক ফুটবলে ভিন্ন চেহারার বাংলাদেশ। এই ম্যাচের আগে যে নয়বার বিভিন্ন বয়সভিত্তিক প্রতিযোগিতায় ভারতের মুখোমুখি হয়েছে, এর পাঁচবারই জিতেছে বাংলাদেশ। ৩টি ম্যাচ ড্র। একবার হার বাংলাদেশের। এবারের টুর্নামেন্টে গ্রুপ পর্বেও বাংলাদেশ হারিয়েছে ভারতকে। এরপর হারাল ফাইনালে।

২০১৭ সালে কমলাপুর স্টেডিয়ামে ভারতকে হারিয়ে সাফ অনূর্ধ্ব-১৫ চ্যাম্পিয়নশিপের শিরোপা উৎসব করে বাংলাদেশ। এবারও ফাইনাল দেখতে গ্যালারি উপচে পড়ে দর্শক। বেশির ভাগ দর্শকের হাতে ছিল জাতীয় পতাকা। কণ্ঠে ছিল বাংলাদেশ, বাংলাদেশ চিৎকার। শীতের সন্ধ্যাটা শেষ পর্যন্ত রঙিন করেই বাড়ি ফিরেছেন দর্শকেরা।

বাংলাদেশ দল: রুপনা চাকমা, মারিয়া মান্দা (অধিনায়ক), শামসুন্নাহার সিনিয়র, আনাই মগিনি, আঁখি খাতুন, মনিকা চাকমা, তহুরা খাতুন, ঋতুপর্ণা চাকমা, নীলুফার ইয়াসমিন, শাহেদা আক্তার, শামসুন্নাহার জুনিয়র।


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published.

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ