সোমবার, ১৫ জুলাই ২০২৪, ০৫:০০ অপরাহ্ন
সংবাদ শিরোনাম :
গণহত্যার বিরুদ্ধে মুসলিম বিশ্বে ঐক্যের আহ্বান প্রধানমন্ত্রীর মেয়েরা রাজাকার বলে স্লোগান দেয়, কোন দেশে বাস করছি: প্রধানমন্ত্রী শিক্ষার্থীদের আন্দোলনে ভেসে যাবে সরকার: রিজভী ১২ দলীয় জোটে যোগ দিলো বিকল্পধারাসহ নতুন ২ দল ড. ইউনূসসহ ১৪ জনের বিরুদ্ধে সাক্ষ্যগ্রহণ পেছাল বন্যার পানিতে ক্ষতিগ্রস্ত সিরাজগঞ্জের তাঁত শিল্প আইনশৃঙ্খলা ভঙ্গ করলে শক্ত হাতে মোকাবিলা হবে: ডিএমপি এবার প্রধানমন্ত্রীর বক্তব্য প্রত্যাহারের দাবিতে আন্দোলন কোটা আন্দোলন : এবার রাজপথে মেডিকেলের শিক্ষার্থীরা প্রধানমন্ত্রীর সাবেক ব্যক্তিগত সহকারী ও তার স্ত্রীর হিসাব স্থগিত বছরে প্রায় ৩০ কোটি টাকার কৃত্রিম ফুল আমদানি জলাবদ্ধতা রাজধানী নিয়ে উদ্বিগ্ন নগরবাসী নানা পরিস্থিতি বিবেচনায় রপ্তানি আয়ে ধীরগতি সম্মেলনে যোগ দিতে মিলওয়াকিতে পৌঁছেছেন ডোনাল্ড ট্রাম্প গাজায় ইসরায়েলি হামলা, নিহত ১৪১ ফিলিস্তিনি

মেট্রোরেলের সঙ্গে নগর পরিবহনের যাত্রীসেবা সমন্বয় করা হবে

রিপোর্টারের নাম :
আপডেট : আগস্ট ২৪, ২০২২
মেট্রোরেলের সঙ্গে নগর পরিবহনের যাত্রীসেবা সমন্বয় করা হবে

মেট্রোরেলে চলাচলকারী যাত্রীদের সঙ্গে ঢাকার নগর পরিবহনের যাত্রীসেবা সমন্বয় করা হবে বলে জানিয়েছেন ঢাকা দক্ষিণ সিটি করপোরেশনের (ঢাদসিক) মেয়র ব্যারিস্টার শেখ ফজলে নূর তাপস। নগরীতে যানবাহনে মানসম্পন্ন সেবা নিশ্চিত করতে এমনটি করা হবে বলে জানান তিনি।

বুধবার (২৪ অগাস্ট) সকালে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিক্যাল বিশ্ববিদ্যালয় সংলগ্ন এলাকায় বাস রুট রেশনালাইজেশন কার্যক্রমের পরীক্ষামূলক যাত্রাপথে বাস থামার স্থান পরিদর্শন শেষে গণমাধ্যমের সঙ্গে মতবিনিময়কালে তিনি এ কথা বলেন।

এ সময় মেয়র বলেন, ‘শাহবাগ একটি অত্যন্ত জনবহুল ও ব্যস্ত এলাকা। যেহেতু এখানে মেট্রোরেলের নামার ২টি স্থান হবে, তার সঙ্গে যদি আমরা ঢাকা নগর পরিবহনের যাত্রী সেবাটা সমন্বয় করতে পারি, তবে সবক্ষেত্রে যাত্রীরা মানসম্পন্ন সেবা পাবে।’

তাপস জানান মেট্রোরেলের কাজ শেষ হওয়ার পর শাহবাগে ২টি বাস-বে/ যাত্রী ছাউনি নির্মাণ করা হবে। তিনি বলেন, ‘এখানে হাঁটার পর্যাপ্ত জায়গা রাখা হবে এবং একটি সারি সম্পূর্ণরূপে বাসের জন্য রাখা হবে। মেট্রোরেল থেকে যারা নামবেন, তারা যেন স্বাচ্ছন্দ্যে বাসের সেবা নিতে পারেন এবং অন্য গন্তব্যস্থলে যেতে পারেন। সেজন্য এখানে দুটো যাত্রী ছাউনি হবে। একটি এপারে এবং আরেকটি ওপারে। মেট্রোরেলের কারণে এই দুটো যাত্রী ছাউনি নির্মাণে আমাদের একটু সময় লাগবে। আপাতত এখানে যাত্রী ছাউনি নির্মাণ করবো না। মেট্রোরেলের কাজ সম্পন্ন হলে আমরা এই দুটো যাত্রী ছাউনি/বাস-বে আমরা চালু করবো।’

এ সময় সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাবে তাপস বলেন, ‘ঢাকা শহরের সব কিছুর পরিচালনা একটি সূচির আওতায় আসতে হবে। সে লক্ষ্যে আমরা একটি গণবিজ্ঞপ্তি দিয়েছি। আমরা মনে করি, সংশ্লিষ্ট সবাই আমাদের সহায়তা করবে। কারণ ঢাকাকে আমরা একটি সুষ্ঠু সময় সূচির মাধ্যমে পরিচালনা করতে চাই। এটা সারাবিশ্ব করে। প্রত্যেকটা শহরের একটি সময়সূচি থাকে। কিন্তু ঢাকা শহরের কোনো সময়ই কোনো সময়সূচি ছিল না। এটাই আমরা চাচ্ছি, ঢাকার একটি সময় সূচি নির্ধারিত হবে। এ লক্ষ্যে আমরা গণবিজ্ঞপ্তি দিয়েছি। আগামী পহেলা সেপ্টেম্বর থেকে এটা কার্যকর হবে। আমি আশা করবো, সবাই এ ব্যাপারে সহযোগিতা করবে।’

রাতে ওষুধের দোকান বন্ধ রাখার বিষয়ে মেয়র বলেন, ‘ওষুধের দোকান এবং ওষুধ সেবাকে আমরা সর্বোচ্চ সময় দিয়েছি। অলিগলি, বিভিন্ন এলাকায় সেগুলোকে আমরা ১২টা পর্যন্ত খোলা রেখেছি। যেগুলো হাসপাতালের সঙ্গে সংশ্লিষ্ট, সেগুলোকে আমরা ২টা পর্যন্ত খোলা রাখতে বলেছি। আমরা মনে করি, এটা যথেষ্ট। সর্বোচ্চ সময় ওষুধ এবং স্বাস্থ্যসেবা খাতকে দেওয়া হয়েছে।’

এ সময় অন্যদের মধ্যে করপোরেশনের প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা ফরিদ আহাম্মদ, ঢাকা পরিবহন সমন্বয় কর্তৃপক্ষের নির্বাহী পরিচালক সাবিহা পারভীন, গণপরিবহন বিশেষজ্ঞ ড. এস এম সালেহ উদ্দিন, করপোরেশনের সচিব আকরামুজ্জামান, প্রধান প্রকৌশলী সালেহ আহম্মেদ, অঞ্চল-১ এর আঞ্চলিক নির্বাহী কর্মকর্তা মেরীনা নাজনীন, প্রধান সম্পত্তি কর্মকর্তা রাসেল সাবরিন, ২১ নম্বর ওয়ার্ডের কাউন্সিলর আসাদুজ্জামান আসাদ এবং সংরক্ষিত আসনের কাউন্সিলর নারগীস মাহতাব প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন।


এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ