শুক্রবার, ১২ অগাস্ট ২০২২, ০৩:৪৬ অপরাহ্ন
সংবাদ শিরোনাম :
সিরাজগঞ্জের শাহজাদপুরে যমুনার তীব্র ভাঙন জিম্বাবুয়ে সফরে ভারতের অধিনায়ক রাহুল বিশ্বজুড়ে ট্যালকম বেবি পাউডার বিক্রি বন্ধের ঘোষণা দিলো জনসন জ্বালানি তেলের প্রভাবে নিত্যপণ্যের বাজারে আগুন ক্ষমতাসীনদের দুর্নীতি আকাশচুম্বী : ফখরুল দলের ৮ বিভাগের নেতাদের ডেকেছেন শেখ হাসিনা আওয়ামী লীগের নেতৃত্বে আসছেন সোহেল তাজ! বঙ্গবন্ধুর সমাধিতে প্রধানমন্ত্রীর শ্রদ্ধা নিবেদন তীব্র তাপদাহ ও দাবানলের সাথে লড়ছে ইউরোপ সিয়েরা লিওনে সংঘর্ষে ২৭ জনের প্রাণহানি প্রতিপক্ষের দুশ্চিন্তা বাড়াবে চীনের যে সামরিক হেলিকপ্টার এফবিআই কার্যালয়ে অস্ত্র নিয়ে ‘ট্রাম্প সমর্থক’, গুলি খেয়ে মৃত্যু চট্টগ্রামে বেসরকারি কন্টেইনার ডিপোতে চার্জবৃদ্ধি এশিয়া কাপের আগে বড় দুশ্চিন্তায় পাকিস্তান আয়ারল্যান্ডের কাছে আবারও হারলো আফগানিস্তান

যেকোনো সময় তুরস্কের ওপর মার্কিন নিষেধাজ্ঞা

রিপোর্টারের নাম : / ৫৬৮ জন দেখেছেন
আপডেট : ডিসেম্বর ১১, ২০২০
বৃত্তান্ত২৪ অনলাইনের সর্বশেষ খবর পেতে গুগল নিউজ (Google News) ফিডটি অনুসরণ করুন

মার্কিন হুঁশিয়ারি উপেক্ষা করে রাশিয়ার কাছ থেকে এস-৪০০ ক্ষেপণাস্ত্র প্রতিরক্ষা ব্যবস্থা কেনার ঘটনায় তুরস্কের বিরুদ্ধে নিষেধাজ্ঞা দেয়ার কাছাকাছি অবস্থায় রয়েছে আমেরিকা। মার্কিন দুই কর্মকর্তাসহ চারটি সূত্র গতকাল বৃহস্পতিবার বার্তা সংস্থা রয়টার্সকে এ কথা নিশ্চিত করেছে।

সূত্রগুলো বলছে, যেকোনো দিন তুরস্কের বিরুদ্ধে মার্কিন নিষেধাজ্ঞার ঘোষণা আসতে পারে। আংকারার ওপর নিষেধাজ্ঞা দিলে তুরস্কের সাথে ন্যাটো জোটের দূরত্ব আরো বেশি বাড়বে- এতে কোনো সন্দেহ নেই।

২০১৭ সালের সেপ্টেম্বর মাসে রাশিয়ার সঙ্গে তুরস্ক আড়াইশো কোটি ডলারের সামরিক চুক্তি করে। এই চুক্তির আওতায় তুরস্ক রাশিয়ার কাছ থেকে ভূমি থেকে আকাশে নিক্ষেপযোগ্য এস-ফোর হান্ড্রেড ক্ষেপণাস্ত্র প্রতিরক্ষা ব্যবস্থা কেনার কথা নিশ্চিত করে। এই ক্ষেপণাস্ত্র প্রতিরক্ষা ব্যবস্থা ব্যবহারের মাধ্যমে জঙ্গিবিমান, ক্রুজ এবং ব্যালিস্টিক ক্ষেপণাস্ত্র সহজে ধ্বংস করা যায়। এছাড়া, ভূমিতে স্থাপিত যেকোনো স্থাপনার বিরুদ্ধেও এই ক্ষেপণাস্ত্র ব্যবস্থা অত্যন্ত কার্যকরী।

গত বছরের জুলাই মাসে রাশিয়া তুরস্কের কাছে এস-ফোর হান্ড্রেড ক্ষেপণাস্ত্র প্রতিরক্ষা ব্যবস্থার কয়েকটি চালান সরবরাহ করে। কিন্তু আমেরিকা শুরু থেকেই তুরস্ককে এই ক্ষেপণাস্ত্র প্রতিরক্ষা ব্যবস্থা কেনা এবং চালু করার বিরুদ্ধে সতর্ক করে আসছে। আমেরিকা বলছে ন্যাটো জোটের সামরিক সরঞ্জাম এবং মার্কিন এফ-৩৫ জঙ্গিবিমানের সঙ্গে রুশ ক্ষেপণাস্ত্র প্রতিরক্ষা ব্যবস্থা মানানসই হতে পারে না। কিন্তু বিশেষজ্ঞরা বলছেন, এস-৪০০ ক্ষেপণাস্ত্র ব্যবস্থার কাছে মার্কিন এফ-৩৫ বিমানের দূর্বলতা প্রকাশ হয়ে পড়ার আশঙ্কা থেকেই মূলত আমেরিকা তুরস্কের ওপরে এই ব্যবস্থা না কেনার চাপ সৃষ্টি করেছে।


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published.

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ