শুক্রবার, ১২ অগাস্ট ২০২২, ০২:৪৮ অপরাহ্ন
সংবাদ শিরোনাম :
সিরাজগঞ্জের শাহজাদপুরে যমুনার তীব্র ভাঙন জিম্বাবুয়ে সফরে ভারতের অধিনায়ক রাহুল বিশ্বজুড়ে ট্যালকম বেবি পাউডার বিক্রি বন্ধের ঘোষণা দিলো জনসন জ্বালানি তেলের প্রভাবে নিত্যপণ্যের বাজারে আগুন ক্ষমতাসীনদের দুর্নীতি আকাশচুম্বী : ফখরুল দলের ৮ বিভাগের নেতাদের ডেকেছেন শেখ হাসিনা আওয়ামী লীগের নেতৃত্বে আসছেন সোহেল তাজ! বঙ্গবন্ধুর সমাধিতে প্রধানমন্ত্রীর শ্রদ্ধা নিবেদন তীব্র তাপদাহ ও দাবানলের সাথে লড়ছে ইউরোপ সিয়েরা লিওনে সংঘর্ষে ২৭ জনের প্রাণহানি প্রতিপক্ষের দুশ্চিন্তা বাড়াবে চীনের যে সামরিক হেলিকপ্টার এফবিআই কার্যালয়ে অস্ত্র নিয়ে ‘ট্রাম্প সমর্থক’, গুলি খেয়ে মৃত্যু চট্টগ্রামে বেসরকারি কন্টেইনার ডিপোতে চার্জবৃদ্ধি এশিয়া কাপের আগে বড় দুশ্চিন্তায় পাকিস্তান আয়ারল্যান্ডের কাছে আবারও হারলো আফগানিস্তান

শীর্ষ দল হিসেবেই প্লে অফে চট্টগ্রাম

রিপোর্টারের নাম : / ৪৩৮ জন দেখেছেন
আপডেট : ডিসেম্বর ১০, ২০২০
শীর্ষ দল হিসেবেই প্লে অফে চট্টগ্রাম
বৃত্তান্ত২৪ অনলাইনের সর্বশেষ খবর পেতে গুগল নিউজ (Google News) ফিডটি অনুসরণ করুন

ফরচুন বরিশালকে ৭ উইকেটে হারিয়ে শীর্ষ দল হিসেবেই প্লে অফ নিশ্চিত করল গাজী গ্রুপ চট্টগ্রাম। আজ মিরপুরের শেরে-বাংলা জাতীয় ক্রিকেট স্টেডিয়ামে অনুষ্ঠিত নিজেদের সপ্তম ম্যাচে বরিশালকে হারায় মোহাম্মদ মিথুনের দল। এই নিয়ে ৭ ম্যাচের ছয়টিতে জিতে ১২ পয়েন্ট সংগ্রহ করেছে চট্টগ্রাম। যাদের ধারে কাছেও নেই প্লে অফ নিশ্চিত করা বাকী দল গুলো। প্লে অফ নিশ্চিত করা তারকা সমৃদ্ধ খুলনা ৮ ম্যাচ থেকে সংগ্রহ করেছে ৮ পয়েন্ট। ৭ ম্যাচ থেকে ৮ পয়েন্ট নিয়ে প্লে অফ নিশ্চিত করেছে বেক্সিমকো ঢাকাও। পরের ম্যাচে তারা জয় পেলেও টপকাতে পারবে না চট্টগ্রামকে।
আজ ফরচুন বরিশালের ছুড়ে দেয়া ১৫০ রানের টার্গেট সহজেই টপকে যায় চট্টগ্রাম। ৮ বল হাতে রেখে ৩ উইকেট হারিয়ে ১৫৩ রান সংগ্রহ করে বন্দর নগরী চট্টগ্রামের দলটি। দলের পক্ষে সর্বোচ্চ ৬২ রান করেছেন সৌম্য সরকার। ৩৭ বলে ৭টি চার ও ৩টি ছক্কায় নিজের ইনিংসটি সাজান জাতীয় দলের এ ওপেনার। সৈকত করেছেন ৩৩ বলে ৩৯ রান। একটি ওভার বাউন্ডারি ও ছয়টি বাউন্ডারি মারেন তিনি। এছাড়া মাহমুদুল হাসান জয় ৩১ ও মোসাদ্দেক হোসেন ১২ রানে অপরাজিত থাকেন।
এর আগে টস জিতে ব্যাটিং নেয়া ফরচুন বরিশালকে ৬ উইকেটে ১৪৯ রানে আটকে দেয় গাজী গ্রুপ চট্টগ্রাম। চট্টগ্রামের নিয়মিত চার ক্রিকেটারকে বিশ্রাম দেয়ার সুযোগকে কাজে লাগিয়ে বরিশালকে ভাল সুচনা এনে দেন দুই ওপেনার তামিম ইকবাল ও সাইফ হোসেন। ১০.৫ ওভারে বিনা উইকেটে ৮৭ রান তুলে নেয় এই জুটি। সুচনা দেখে মনে হচ্ছিল অন্তত ২০০ রান সংগ্রহ করবে বরিশাল।
কিন্তু সেটি হয়নি। প্রথম উইকেট হিসেবে সাইফের পতনের পরপরই পাল্টে যায় দৃশ্যপট। ৩৩ বলে ৬টি চার ও ২টি ছয় হাকিয়ে ৪৬ রান সংগ্রহ করে মোসাদ্দেক হোসেন সৈকতের লেগ বিফোরের ফাঁদে পড়ে বিদায় নেন সাইফ। তার পরপরই মোসাদ্দেকের হাতে ফিরতি ক্যাচ দিয়ে ক্রিজ ছাড়েন অধিনায়ক তামিম ইকবাল। বিদায়ের আগে জাতীয় দলের এই ওপেনার ৫টি চারের সহায়তায় ৩৯ বলে সংগ্রহ করেন ৪৩ রান। মোসাদ্দেক হোসেন সৈকতের পর দৃশ্যপটে আসেন সঞ্জিত সাহা ও জিয়াউর রহমান। এই দুই বোলার একেবারেই কোনঠাসা করে ফেলেন বরিশালের ব্যাটসম্যানদের। যেখান থেকে আর বেরুতে পারেনি তারা। শেষ পর্যন্ত আফিফ হোসেনের ১৬ বলে অপরাজিত ২৮ রানে ভর করে চট্টগ্রামের সামনে ১৫০ রানের টার্গেট দাঁড় করাতে সক্ষম হয় বরিশাল। দুটি করে উইকেট নেন সঞ্জিত, মোসাদ্দেক ও জিয়াউর রহমান।
সংক্ষিপ্ত স্কোর:
ফরচুন বরিশাল: ২০ ওভারে ১৪৯/৬ (সাইফ হাসান ৪৬, তামিম ইকবাল ৪৩, আফিফ হোসেন ২৮*, মোসাদ্দেক ২/১৬, সঞ্জিত সাহা ২/২২ও জিয়াউর রহমান ২/২৫)
গাজী গ্রুপ চট্টগ্রাম: ১৮.৪ ওভারে ১৫০/৩ (সৌম্য সরকার ৬২, সৈকত আলী ৩৯, মাহমুদুল হাসান জয় ৩১* , মোসাদ্দেক হোসেন ১২*, সুমন খান ২/৩০, মেহেদি হাসান মিরাজ ১/৩২)
ফলাফল: গাজী গ্রুপ চট্টগ্রাম ৭ উইকেটে জয়ী।


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published.

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ