রবিবার, ২৩ জানুয়ারী ২০২২, ১১:০১ পূর্বাহ্ন
সংবাদ শিরোনাম :
বোরো মৌসুমের নতুন ১০টি জাতের ধানের নিবন্ধন ছাড় আইন প্রণয়নসহ নির্বাচন কমিশনের আর্থিক অবস্থা শক্তিশালী করার প্রস্তাব আওয়ামী লীগের ৫০ ঊর্ধ্ব বয়সীদের করোনা ভ্যাকসিনের বুস্টার ডোজ: স্বাস্থ্যমন্ত্রী নির্বাচন কমিশন নিয়োগে আইনের খসড়ায় মন্ত্রিসভার চূড়ান্ত অনুমোদন ডিসি সম্মেলন শুরু মঙ্গলবার, মাঠ প্রশাসনের কর্তারা আরো ক্ষমতা চান স্বাধীনতা বিরোধীতাকারীদের তালিকা প্রকাশে জামুকা আইনের খসড়া মন্ত্রিসভায় অনুমোদন প্রতিদ্বন্দ্বী প্রার্থীর প্রতিশ্রুতিও বাস্তবায়নে পদক্ষেপ নেব: বিজয়ী নাসিক মেয়র আইভী ইভিএম কারচুপির জন্য পরাজয়: তৈমুর বোরো উৎপাদনে কেজিতে সর্বোচ্চ ৬৫০ লিটার পানির প্রয়োজন: ব্রির গবেষণা ২৪ বিসিএসের (প্রশাসন) নতুন কমিটি: সভাপতি নাছির, সম্পাদক হামিদ নারায়ণগঞ্জ সিটি নির্বাচন: আইভী থাকছেন নাকি তৈমুর হচ্ছেন মেয়র মালয়েশিয়ায় বিদেশি কর্মী নিয়োগে অনলাইন আবেদন ২৮ জানুয়ারি থেকে রবিবার বিকেলে বসছে সংসদের ষোড়শ অধিবেশন বিধিনিষেধ না মানলে লকডাউন: স্বাস্থ্যমন্ত্রী করোনায় আরও ৭ জনের মৃত্যু, নতুন শনাক্ত ৩,৪৪৭ ২০ জানুয়ারির পর রোডমার্চ-গণসংযোগ কর্মসূচি দিচ্ছে বিদিশার জাতীয় পার্টি ক্লাইমেট স্মার্ট কৃষিপ্রযুক্তির উন্নয়নে ‘সমন্বিত প্রকল্প’ নিবে ডি-৮ ২ বছর পর হচ্ছে তিনদিনের ডিসি সম্মেলন, শুরু ১৮ জানুয়ারি জমজমাট চলচ্চিত্র শিল্পী সমিতির নির্বাচন: দুই প্যানেলে প্রধান মিশা ও কাঞ্চন রাষ্ট্রপতির সংলাপে নির্বাচনী আইন প্রণয়নসহ ৫ দফা প্রস্তাব এনপিপি’র

সরকারি অফিসের সামনে দালাল চক্রের ৫০০ সদস্য আটক করছে র‍্যাব

রিপোর্টারের নাম : / ১২৮ জন দেখেছেন
আপডেট : রবিবার, ২৩ জানুয়ারী ২০২২, ১১:০১ পূর্বাহ্ন

বৃত্তান্ত প্রতিবেদক: বিভিন্ন সরকারি অফিসের সামনে সক্রিয় দালাল চক্রের সদস্যদের বিরুদ্ধে সারাদেশে একযোগে অভিযান চালিয়েছে র‍্যাপিড অ্যাকশন ব্যাটালিয়নের (র‍্যাব) ভ্রাম্যমাণ আদালত।

রোববারের অভিযানে র‍্যারের ভ্রাম্যমাণ আদালত দালাল চক্রের প্রায় পাঁচশ সদস্যকে আটক করে বিভিন্ন মেয়াদে কারাদণ্ড ও অর্থদণ্ড দিয়েছে বলে জানিয়েছে র‍্যাব সদরদপ্তরের লিগ্যাল অ্যান্ড মিডিয়া উইংয়ের সহকারী পরিচালক এএসপি আ ন ম ইমরান খান।

তিনি বলেন, সাম্প্রতিক সময়ে গণমাধ্যম ও সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে স্বাস্থ্যখাত, পরিবহনখাত, পাসপোর্ট অফিস, বিআরটিএসহ বিভিন্ন সেক্টরে দালাল চক্রের সক্রিয়তা ও আধিপত্য নিয়ে বেশকিছু সংবাদ প্রকাশিত হয়। এসব দালাল চক্রের অত্যাচারে জনগণ প্রত্যাশিত সেবা থেকে বঞ্চিত হচ্ছে। অনেক সময় প্রত্যাশিত সেবা পেতে নির্ধারিত মূল্যের থেকে অনেক বেশি অর্থ খরচ করতে হয়। আবার অনেকেই অধিক অর্থ ব্যয় করেও প্রত্যাশিত সেবা পান না। এরই পরিপ্রেক্ষিতে র‍্যাব সারাদেশে বিভিন্ন সেক্টরে দালাল চক্রের বিরুদ্ধে গোয়েন্দা নজরদারি বাড়ায়।

তিনি বলেন, এরই ধারাবাহিকতায় রোববার (৫ সেপ্টেম্বর) র‍্যাবের নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট ও জেলা প্রশাসনের নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট এবং অন্যান্য সংস্থার নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেটদের সমন্বয়ে দেশব্যাপী দালাল চক্রের বিরুদ্ধে র‍্যাবের ১৫টি ব্যাটালিয়ন একযোগে অভিযান চালায়।

অভিযানে ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতাল, স্যার সলিমুল্লাহ মেডিকেল কলেজ হাসপাতাল, সোহরাওয়ার্দী মেডিকেল কলেজ হাসপাতাল, চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ হাসপাতাল, রংপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতাল, ন্যাশনাল হার্ট ফাউন্ডেশন, পাসপোর্ট অফিস, বিআরটিএ অফিস এলাকাসহ পরিচালিত ৬৮টি ভ্রাম্যমাণ আদালতে নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেটরা ২৪৮ জন দালালকে ৯ লাখ টাকা জরিমানা করেন। এছাড়া ২৪৯ দালালকে বিভিন্ন মেয়াদে কারাদণ্ড দেওয়া হয়।

প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে দালাল চক্রের সদস্যরা তাদের কৃতকর্মের কথা স্বীকার করে। দালাল চক্রের বিরুদ্ধে ভবিষ্যতেও র‍্যাবের নজরদারি ও জোরালো অভিযান অব্যাহত থাকবে বলেও জানান র‍্যাবের এই কর্মকর্তা।

এ বিষয়ে র‌্যাবের লিগ্যাল অ্যান্ড মিডিয়া উইংয়ের পরিচালক কমান্ডার খন্দকার আল মঈন বলেন, সাম্প্রতিক সময়ে আমরা লক্ষ্য করেছি, বিভিন্ন সেবামূলক প্রতিষ্ঠানে দালালদের দৌরাত্ম্য অনেকাংশে বেড়েছে। এক্ষেত্রে অনেক ভুক্তভোগী বিভিন্নভাবে প্রতারিত হয়ে র‍্যাবের কাছে অভিযোগ করেছেন। পাশাপাশি র‍্যাব সাইবার মনিটরিং সেলের মাধ্যমেও বিভিন্ন সাইবার ওয়ার্ল্ডে আমরা দেখেছি, এ সংক্রান্ত ব্যাপক নেতিবাচক প্রচারণা রয়েছে। এছাড়া র‍্যাব সদরদপ্তর পরিচালিত ফেসবুক পেজ ‘র‍্যাব অনলাইন মিডিয়া সেলে’ অনেক ভুক্তভোগী প্রতারিত হয়ে অভিযোগ করেছেন।

তিনি বলেন, এসব অভিযোগের পরিপ্রেক্ষিতে র‍্যাবের সব ব্যাটালিয়ন একযোগে দেশব্যাপী দালালবিরোধী অভিযান পরিচালনা করেছে। এ অভিযানে আমাদের সঙ্গে ছিল র‍্যাবের নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেটরাসহ সিভিল প্রশাসনের নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট ও বিভিন্ন সংস্থার কর্মকর্তারা। আমরা দেশব্যাপী ৫০টির বেশি সরকারি সংস্থার সামনে মোবাইল কোর্ট পরিচালনা করে পাঁচ শতাধিক দালালকে আটক করতে সক্ষম হই। পরে তাদের বিভিন্ন মেয়াদে কারাদণ্ড ও অর্থদণ্ড প্রদান করা হয়।


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ