বুধবার, ২৪ এপ্রিল ২০২৪, ০৯:৩৫ অপরাহ্ন
সংবাদ শিরোনাম :
পাকিস্তান-নিউজিল্যান্ডের উভয়েরই লক্ষ্য সিরিজে এগিয়ে যাওয়া মিয়ানমার থেকে ফিরলেন ১৭৩ বাংলাদেশি আপিল বিভাগে ৩ বিচারপতি নিয়োগ মন্ত্রী-এমপির স্বজনরা প্রার্থিতা প্রত্যাহার না করলে ব্যবস্থা: কাদের ফিলিপাইনে তাপমাত্রা ৪৭ ডিগ্রি সেলসিয়াস উত্তর কোরীয় প্রতিনিধি দলের ইরান সফর খালেদা জিয়ার গ্যাটকো মামলায় চার্জশুনানি ২৫ জুন অফশোর ব্যাংকিংয়ে সুদের ওপর কর প্রত্যাহার রানা প্লাজায় নিহতদের স্মরণ দেশের হজ ব্যবস্থাপনা বিশ্বের মধ্যে স্মার্ট হবে: ধর্মমন্ত্রী থাইল্যান্ডে পৌঁছেছেন প্রধানমন্ত্রী তাপদাহের মধ্যে গ্রামে ১০৪৯ মেগাওয়াট লোডশেডিং ফিলিস্তিনকে রাষ্ট্র হিসেবে স্বীকৃতি দিলো জ্যামাইকা সুইজারল্যান্ডে জব্দ রয়েছে রাশিয়ার ১ হাজার ৪শ’ কোটি ডলার জিবুতি উপকূলে অভিবাসীবাহী নৌকাডুবিতে নিহত ৩৩

সরকারি গুদামে আমন সরবরাহ না করা চালকলের লাইসেন্স বাতিল হচ্ছে

রিপোর্টারের নাম :
আপডেট : এপ্রিল ৭, ২০২২

বৃত্তান্ত প্রতিবেদক: চলতি মৌসুমে (২০২১-২০২২) অভ্যন্তরীণ উৎপাদন থেকে আমন ধান সংগ্রহের ক্ষেত্রে চুক্তি অনুযায়ী চাল সরবরাহে ব্যর্থ চালকল মালিকদের কঠোর শাস্তি নিশ্চিত করতে খাদ্য অধিদপ্তরকে নির্দেশ দিয়েছে খাদ্য মন্ত্রণালয়।

একইসঙ্গে আমন সংগ্রহ মৌসুমে চুক্তিযোগ্য থাকার পরও সরকারের সঙ্গে চাল সরবরাহের চুক্তি না করার চালকলগুলোর লাইসেন্সও যথাযথ প্রক্রিয়ায অনুসরণ করে বাতিল করার নির্দেশও দেওয়া হয়।

সম্প্রতি খাদ্য মন্ত্রণালয় থেকে এ নির্দেশনা দিয়ে একটি চিঠি খাদ্য অধিদপ্তরের মহাপরিচালকের কাছে পাঠানো হয়েছে।

চিঠিতে বলা হয়, আমন সংগ্রহ মৌসুমে চুক্তিযোগ্য ছিল, কিন্তু চুক্তি করেননি এমন চালকলের যথাযথ প্রক্রিয়ায় লাইসেন্স বাতিল করতে হবে।

অন্যদিকে, চুক্তি করার পরও কোনো চাল সরবরাহ করেনি এমন চালকলের জামানত বাজেয়াপ্তসহ যথাযথ প্রক্রিয়ায় লাইসেন্স বাতিল করতে বলেছে খাদ্য মন্ত্রণালয়।

চুক্তির পরিমাণের ৮০ শতাংশ কিংবা এর বেশি পরিমাণ চাল সরবরাহকারী চালকলের বিশেষ বিবেচনায় জামানত অবমুক্ত করতে বলা হয়েছে।

তবে চুক্তির ৮০ শতাংশের কম সরবরাহকারী চালকলের বিশেষ বিবেচনায় অসরবরাহকৃত চালের আনুপাতিক হারে জামানত বাজেয়াপ্ত করার নির্দেশনা দিয়েছে খাদ্য মন্ত্রণালয়।

খাদ্য মন্ত্রণালয়ের চিঠির পরিপ্রেক্ষিতে চালকলের নাম ও ঠিকানা, পাক্ষিক ছাঁটাইক্ষমতা, লাইসেন্স নম্বর ও তারিখ ৭ এপ্রিলের মধ্যে পাঠানোর জন্য আঞ্চলিক খাদ্য নিয়ন্ত্রকদের নির্দেশনা দিয়েছে খাদ্য মন্ত্রণালয়।

চলতি আমন মৌসুমে সরকার তিন লাখ টন ধান ও সাত লাখ ২০ হাজার টন চাল কেনার লক্ষ্যমাত্রা নির্ধারণ করে। গত বছরের ৭ নভেম্বর সংগ্রহ শুরু হয়ে চলে চলতি বছরের ২৮ ফেব্রুয়ারি পর্যন্ত। সংগ্রহ মূল্য ছিল প্রতি কেজি ধান ২৭ টাকা ও সিদ্ধ চাল ৪০ টাকা।


এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ