মঙ্গলবার, ০৬ ডিসেম্বর ২০২২, ০৩:৫৭ অপরাহ্ন
সংবাদ শিরোনাম :
দেশের সব জায়গায় কাল থেকে সতর্ক পাহারায় থাকবে আ. লীগ: সেতুমন্ত্রী রাজধানীর নতুন যে জায়গায় সমাবেশের অনুমতি চেয়েছে বিএনপি হলো না ছাত্রলীগের নতুন কমিটি ভোট চুরি করলে জনগণ ছেড়ে দেয় না : প্রধানমন্ত্রী রাস্তায় পেতে রাখা বোমার বিস্ফোরণে ৭ জন নিহত বিধ্বস্ত পাওয়ার গ্রিড পুনরুদ্ধারের চেষ্টা চালাচ্ছে ইউক্রেন পঞ্চগড়ে দেশের সর্বনিম্ন তাপমাত্রার রেকর্ড ছাত্রলীগের সম্মেলন উদ্বোধন করলেন প্রধানমন্ত্রী জরুরি ভিত্তিতে কর্মী নেবে রাশিয়া, লাগবে না ভাড়া বাংলাদেশ বিনিয়োগের সবচেয়ে আকর্ষণীয় জায়গা- প্রধানমন্ত্রী নতুন বছরের ‘শুরুতেই’ দ্বিতীয় মেয়াদের বিষয়ে সিদ্ধান্ত নেবেন বাইডেন গাইবান্ধা-৫ আসনের উপনির্বাচন ৪ জানুয়ারি ব্রাজিলের জয় নিয়ে যা বললেন বুবলী অসুস্থ পেলেকে জয় উৎসর্গ করলেন নেইমাররা ফেরি চলাচল ব্যাহত দৌলতদিয়া-পাটুরিয়া নৌপথে

২০৩০ সালের মধ্যে সব নদীর পলি অপসারণের উদ্যোগ সরকারের

রিপোর্টারের নাম :
আপডেট : নভেম্বর ২৭, ২০২১

নৌপরিবহন প্রতিমন্ত্রী খালিদ মাহমুদ চৌধুরী বলেছেন ভালবাসা থেকে নদীমাতৃক দেশের নদী দখল রোধ ও পলি অপসারনের মাধ্যমে নাব্যতা রক্ষার চ্যালেঞ্জগুলো মোকাবেলায় সরকার বসে নেই। এজন্য সরকার অনেক পদক্ষেপ নিয়েছে। খনন করে আগামী ২০৩০ সালের মধ্যে সকল নদীর পলি অপসারনের উদ্যোগ নেওয়া হয়েছে। এজন্য বিআইডব্লিউটিএ’র মাধ্যমে ৮০টি ড্রেজার কেনা হচ্ছে।
তিনি বৃহস্পতিবার জাতীয় প্রেসক্লাবের আবদুস সালাম হলে অনুষ্ঠিত ‘বাংলাদেশের নদীর নাব্যতা ও পলি ব্যবস্থাপনার চ্যালেঞ্জ’ শীর্ষক সেমিনারে প্রধান অতিথির বক্তব্যে একথা বলেন। বাংলাদেশ নদী বাঁচাও আন্দোলনের ১৬তম প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী উপলক্ষে সংগঠনের ঢাকা মহানগর কমিটির উদ্যোগে এ সেমিনারের আয়োজন করা হয়।
নদী বাঁচাও আন্দোলন, ঢাকা মহানগর কমিটির সভাপতি আনিসুর রহমান খানের সভাপতিত্বে ও সাধারণ সম্পাদক মহসীনুল করিম লেবুর সঞ্চালনায় সেমিনারে মূল প্রবন্ধ উপস্থাপন করেন সেন্টার ফর এনভায়রনমেন্টাল অ্যান্ড জিওগ্রাফিক ইনফরমেশন সার্ভিসেস (সিইজিআইএস)-এর সিনিয়র অ্যাডভাইজার ড. মমিনুল হক সরকার।
সেমিনারে বিআইডব্লিউটিএ’র চেয়ারম্যান কমডোর গোলাম সাদেক ও বাংলাদেশ পানি উন্নয়ন বোর্ডের অতিরিক্ত মহাপরিচালক অখিল কুমার বিশ্বাস বিশেষ অতিথি হিসেবে এবং জাতীয় প্রেসক্লাবের সাধারণ সম্পাদক ইলিয়াস খান ও নদী বাঁচাও আন্দোলন কেন্দ্রীয় সভাপতি আনোয়ার সাদাত সম্মানিত অতিথি হিসেবে বক্তব্য দেন।
এছাড়াও আলোচনায় অংশ নেন সংগঠনের কেন্দ্রীয় সহ-সভাপতি ড. লুৎফর রহমান ও ড. মহসীন আলী মণ্ডল, কেন্দ্রীয় সাধারণ সম্পাদক আনোয়ার হোসেন ও জীববৈচিত্র বিষয়ক সম্পাদক খন্দকার হাছিবুর রহমান।
খালিদ মাহমুদ বলেন, নদীর গতিপ্রবাহ ঠিক রাখতে অবৈধ স্থাপনা সরিয়ে নিতে বর্তমান সরকার অনেক চ্যালেঞ্জ নিয়েছে। এসব উদ্যোগ নেয়া অত সহজ নয়। নদীর নাব্যতা ঠিক রাখতে এখন আর নদী শাসন নয়, বরং নদী ব্যবস্থাপনা করা হচ্ছে। একই সঙ্গে নদীর পলিগুলোরও ব্যবস্থাপনা করে তা কাজে লাগানো হচ্ছে। নদীমাতৃক বাংলাদেশের নদীগুলোকে টিকিয়ে রাখতে সবার সম্মিলিত প্রচেষ্টা জরুরি। তবেই নদীর প্রবাহ ফিরে আসবে বলে মনে আমি মনে করি।
প্রতিমন্ত্রী বলেন, বর্তমান নদী ব্যবস্থাপনায় হাজার কোটি টাকা বিনিয়োগ করেছে। নদী খননের মাধ্যমে নৌপথগুলোকে সচল করে সড়কের ও চাপ কমানোর উদ্যোগ নেওয়া হয়েছে। একইসঙ্গে এসব নদী কৃষকদের জন্য ফসল উৎপাদনেও কার্যকর ভূমিকা রাখবে।
বিআইডব্লিউটিএ’র চেয়ারম্যান কমডোর গোলাম সাদেক বলেন, মানুষকে সম্পৃক্ত করে নদীর নাব্যতা রক্ষায় অনেক উদ্যোগ নেয়া হয়েছে। নাব্যতা রক্ষা করতে পারলে নৌপরিবহন অনেক সহজ হবে। পরিবহন ব্যয় অনেক কমে যাবে। বর্তমান সরকার নগর দূষণ দূর করে নাব্যতা রক্ষার মাস্টারপ্ল্যান করেছে। যা বাস্তবায়ন করলে বাংলাদেশের নদীগুলো তার আগের অবস্থা ফিরে পাবে।
পানি উন্নয়ন বোর্ডের অতিরিক্ত মহাপরিচালক অখিল কুমার বিশ্বাস বলেন, আমরা নদীর নাব্যতা রক্ষা ও পলি ব্যবস্থাপনায় বিভিন্ন মেয়াদি কার্যক্রম নিয়ে এগিয়ে যাচ্ছি। বর্তমান জনগণও এ বিষয়ে অনেক সচেতন। পানি আইনের আলোকে পানি উন্নয়ন বোর্ড জেলা পানি ব্যবস্থাপনা কমিটির মাধ্যমে বেশ কিছু উদ্যোগ সফল করার জন্য কাজ করছে।
সেমিনারে বক্তারা দেশের বিভিন্ন এলাকায় নদী দখলমুক্ত ও ড্রেজিংয়ের মাধ্যমে নদীর নাব্যতা ফিরিয়ে আনার দাবি জানান।
বক্তারা বলেন, প্রতি বছর উজানের পানির ঢলে দেশের নদ-নদীগুলোতে প্রায় ২৪০ কোটি মেট্রিক টন পলি জমে। যা দেশের নদ-নদীগুলোর অস্তিত্বকে বিলীন করে ফেলছে। ফলে দেশের বিভিন্ন অঞ্চলে পানির সংকট দেখা দিচ্ছে। একদিকে যেমন নাব্যতা সংকটে নৌযান চলাচল বিঘ্নিত হচ্ছে, তেমনি সেচের পানিরও অভাব দেখা দিচ্ছে।
নাব্যতা রক্ষা করে স্বল্পব্যয়ের নদীপথগুলোকে সচল ও সেচের পানির অভাব পূরণে উপযুক্ত সময়ে নদ-নদী খননের মাধ্যমে পলি অপসারণ ছাড়া এসব নদ-নদীকে বাঁচিয়ে রাখা অসম্ভব। নদ-নদীগুলোকে বাঁচাতে খনন ও দখলমুক্ত করতে সরকারের সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষকে অবিলম্বে কার্যকর পদক্ষেপ নিতে হবে।


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ